সড়ক অবরোধ করে আন্দোলনে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ
jugantor
সড়ক অবরোধ করে আন্দোলনে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:২৭:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

কমিটির দাবিতে রাজধানীর সায়েন্সল্যাবে সড়ক অবরোধ করে রেখেছেন ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কর্মীরা।অবরোধকারীদের স্লোগানে উত্তাল পুরো সায়েন্সল্যাব এলাকা।

রোববার রাত ১১টার দিকে সায়েন্সল্যাব মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

কর্মীদের অভিযোগ, দীর্ঘ ৬ বছর ধরে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি দেওয়া হচ্ছে না। শুধু তাদের আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে।

অবরোধকারীদের দাবি, গত ৬ বছর ধরে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি দেওয়া হচ্ছে না।এরমধ্যে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের তিনটি কমিটি হয়েছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কমিটি তিনটি হয়েছে, কিন্তু তাদের কমিটি হয়নি। শুধু আশ্বাসেই সীমাবদ্ধ।

তারা আরও বলেন, তাদের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। উপায় না পেয়ে রাস্তায় আন্দোলনে নেমেছেন।ছাত্রলীগের সাংগঠনিক অভিভাবক আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো আশ্বাস বা নির্দেশনা না পাওয়ার আগ পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।এক্ষেত্রে অন্য কারো কথা তারা শুনবেন না।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা দায়িত্ব নেওয়ার পর টানা দুই বছর করোনা সংক্রমণের মধ্য দিয়ে গেছে।ক্যাম্পাস বন্ধ ছিল।ফলে কমিটি দেওয়া সম্ভব হয়নি।আমরা কমিটি দেওয়ার চেষ্টা করছি।

সড়ক অবরোধ করে আন্দোলনে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:২৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কমিটির দাবিতে রাজধানীর সায়েন্সল্যাবে সড়ক অবরোধ করে রেখেছেন ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কর্মীরা।অবরোধকারীদের স্লোগানে উত্তাল পুরো সায়েন্সল্যাব এলাকা।

রোববার রাত ১১টার দিকে সায়েন্সল্যাব মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

কর্মীদের অভিযোগ, দীর্ঘ ৬ বছর ধরে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি দেওয়া হচ্ছে না। শুধু তাদের আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে।

অবরোধকারীদের দাবি, গত ৬ বছর ধরে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি দেওয়া হচ্ছে না।এরমধ্যে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের তিনটি কমিটি হয়েছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কমিটি তিনটি হয়েছে, কিন্তু তাদের কমিটি হয়নি। শুধু আশ্বাসেই সীমাবদ্ধ।

তারা আরও বলেন, তাদের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। উপায় না পেয়ে রাস্তায় আন্দোলনে নেমেছেন।ছাত্রলীগের সাংগঠনিক অভিভাবক আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো আশ্বাস বা নির্দেশনা না পাওয়ার আগ পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।এক্ষেত্রে অন্য কারো কথা তারা শুনবেন না।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা দায়িত্ব নেওয়ার পর টানা দুই বছর করোনা সংক্রমণের মধ্য দিয়ে গেছে।ক্যাম্পাস বন্ধ ছিল।ফলে কমিটি দেওয়া সম্ভব হয়নি।আমরা কমিটি দেওয়ার চেষ্টা করছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন