বুড়িগঙ্গায় নৌকাডুবিতে বোনের লাশ উদ্ধার, ভাই নিখোঁজ

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:২৭ | অনলাইন সংস্করণ

বুড়িগঙ্গায় নৌকাডুবিতে বোনের লাশ উদ্ধার, ভাই নিখোঁজ
প্রতীকী ছবি

বুড়িগঙ্গা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ থাকা সুমি আক্তারের (১৮) লাশ পাওয়া গেছে।

শনিবার দুপরের পর বুড়িগঙ্গা নদীতে ভাসতে দেখে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল লাশ উদ্ধার করে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। পরে পুলিশ স্বজনদের কাছে দিয়ে দেয়। এ ঘটনায় এখনও নিখোঁজ রয়েছে রবিউল ইসলাম (৭)।

দুই সন্তানকে হারিয়ে পাগলপ্রায় মা হাওয়া বেগম। নিখোঁজের পর থেকে সন্তানদের সন্ধান পেতে নদীর ধার দিয়ে পায়চারী করেছেন তিনি। একমাত্র মেয়ের লাশ পেয়ে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। ছেলের সন্ধান পেতে তিনি একবার নৌ-পুলিশ, একবার ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের কাছে ছুটে যাচ্ছেন।

নৌ-পুলিশের ওসি আবদুর রাজ্জাক যুগান্তরকে বলেন, নৌকাডুবির পর থেকে এখন পর্যন্ত আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। শনিবার দুপরের দিকে সুমি আক্তারের লাশ ভেসে ওঠে। আমরা তার লাশ পরিবারের কাছে দিয়ে দিয়েছি।

তিনি আরও জানান, নিখোঁজ রবিউলকে উদ্ধার করতে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তৎপর রয়েছে। তিনি জানান, নদীতে স্রোত বেশি থাকায় যেখানে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে সেখান থেকে লাশ অনেক দূরে ভেসে গেছে।

পুলিশ জানায়, ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি বরিশালের হিজলায় যাওয়ার জন্য শুক্রবার সন্ধ্যায় কেরানীগঞ্জ থেকে একটি ডিঙ্গি নৌকায় ওঠেন মা হাওয়া বেগম, মেয়ে এবং দুই ছেলে ইমরান হোসেন ও রবিউল ইসলাম। উদ্দেশ্য সদরঘাটে গিয়ে বরিশালগামী লঞ্চে ওঠা। কিন্তু বুড়িগঙ্গা নদীর মাঝপথে এসে অপর একটি লঞ্চের পানির ঢেউয়ে ডুবে যায় তাদের নৌকা। মা হাওয়া বেগম এবং বড় ছেলে ইমরান হোসেন নদী থেকে উঠতে পারলেও উঠতে পারেনি একমাত্র মেয়ে সুমি এবং ছোট ছেলে রবিউল ইসলাম।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter