সরকারি ভর্তুকিতে জাপানি ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ
jugantor
সরকারি ভর্তুকিতে জাপানি ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ

  সংবাদ বিজ্ঞপ্তি  

০৮ এপ্রিল ২০২১, ১৬:০০:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

কৃষকদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে ধানকাটা, মাড়াই, ঝাড়াই ও বস্তাবন্দি করার আধুনিক যন্ত্র জাপানের ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার।

সরকারি ভর্তুকি প্রকল্পের মাধ্যমে গত ৬ এপ্রিল দেশব্যাপী কৃষকদের মাঝে এ কৃষিযন্ত্র বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরিচালকরা।

অনুষ্ঠানে দেশের ১৪ উপজেলায় ৪০টি ইয়ানমার হারভেস্টার ডেলিভারি দেওয়া হয়।

ইয়ানমার হারভেস্টারে রয়েছে— অত্যাধুনিক স্মার্ট আসিস্ট রিমোট সিস্টেম, (SA-R) যা দেশের কৃষিতে এক অনন্য সংযোজন। এই প্রযুক্তির মাধ্যমে হারভেস্টারের মালিক ঘরে বসেই যন্ত্রটির প্রয়োজনীয় সব তথ্য জানতে পারবেন। এতে যেমন কৃষক উপকৃত হবেন, পাশাপাশি সরকারও ভর্তুকিতে সরবরাহকৃত হারভেস্টারের যাবতীয় তথ্য জানতে পারবে।

বাংলাদেশের জমি ও ফসল উপযোগী অত্যাধুনিক সেন্সরবিশিষ্ট ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার দিয়ে কাঁদা ও শুয়ে পড়া জমির ধান-গম কাটা, মাড়াই, ঝাড়াই ও বস্তাবন্দি করা যায়। এক একর জমির শস্য কাটতে হারভেস্টারের সময় লাগে মাত্র এক ঘণ্টা এবং এ কাজে জ্বালানি খরচ হয় মাত্র ৮ থেকে ১০ লিটার ডিজেল।

সে হিসাবে প্রতি একরে খরচ বাদে লাভ হয় সাড়ে তিন থেকে চার হাজার টাকা। এতে কৃষকের ৬১ শতাংশ খরচ কমে যায়। শ্রম কমে ৭০ শতাংশ। এই হারভেস্টার দিয়ে দিনে প্রায় ৬-৭ একর জমির ধান কাটা যায়।

এসিআই মোটরস দেশব্যাপী জাপানের ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার কৃষিযন্ত্র বিক্রয়োত্তর সেবা নিশ্চিত করছে।

অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই কম্বাইন হারভেস্টার ব্যবহারের ফলে একদিকে যেমন কৃষক উপকৃত হচ্ছে, অন্যদিকে দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হচ্ছে।

সরকারি ভর্তুকিতে জাপানি ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ

 সংবাদ বিজ্ঞপ্তি 
০৮ এপ্রিল ২০২১, ০৪:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কৃষকদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে ধানকাটা, মাড়াই, ঝাড়াই ও বস্তাবন্দি করার আধুনিক যন্ত্র জাপানের ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার। 

সরকারি ভর্তুকি প্রকল্পের মাধ্যমে গত ৬ এপ্রিল দেশব্যাপী কৃষকদের মাঝে এ কৃষিযন্ত্র বিতরণ করা হয়। 

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।  উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরিচালকরা। 

অনুষ্ঠানে  দেশের ১৪ উপজেলায় ৪০টি ইয়ানমার হারভেস্টার ডেলিভারি দেওয়া হয়। 

ইয়ানমার হারভেস্টারে রয়েছে— অত্যাধুনিক স্মার্ট আসিস্ট রিমোট সিস্টেম, (SA-R) যা দেশের কৃষিতে এক অনন্য সংযোজন।  এই প্রযুক্তির মাধ্যমে হারভেস্টারের মালিক ঘরে বসেই যন্ত্রটির প্রয়োজনীয় সব তথ্য জানতে পারবেন।  এতে যেমন কৃষক উপকৃত হবেন, পাশাপাশি সরকারও ভর্তুকিতে সরবরাহকৃত হারভেস্টারের যাবতীয় তথ্য জানতে পারবে।   

বাংলাদেশের জমি ও ফসল উপযোগী অত্যাধুনিক সেন্সরবিশিষ্ট ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার দিয়ে কাঁদা ও শুয়ে পড়া জমির ধান-গম কাটা, মাড়াই, ঝাড়াই ও বস্তাবন্দি করা যায়।  এক একর জমির শস্য কাটতে হারভেস্টারের সময় লাগে মাত্র এক ঘণ্টা এবং এ কাজে জ্বালানি খরচ হয় মাত্র ৮ থেকে ১০ লিটার ডিজেল। 

সে হিসাবে প্রতি একরে খরচ বাদে লাভ হয় সাড়ে তিন থেকে চার হাজার টাকা। এতে কৃষকের ৬১ শতাংশ খরচ কমে যায়। শ্রম কমে ৭০ শতাংশ। এই হারভেস্টার দিয়ে দিনে প্রায় ৬-৭ একর জমির ধান কাটা যায়।  

এসিআই মোটরস দেশব্যাপী জাপানের ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার কৃষিযন্ত্র বিক্রয়োত্তর সেবা নিশ্চিত করছে। 

অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই কম্বাইন হারভেস্টার ব্যবহারের ফলে একদিকে যেমন কৃষক উপকৃত হচ্ছে, অন্যদিকে দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হচ্ছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন