এলজিইডি’র ৮ জেলার প্রকৌশলীদের নিয়ে প্রশিক্ষণ
jugantor
এলজিইডি’র ৮ জেলার প্রকৌশলীদের নিয়ে প্রশিক্ষণ

  সংবাদ বিজ্ঞপ্তি  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:১৪:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এর ‘জলবায়ু সহিষ্ণু অবকাঠামো প্রাতিষ্ঠানিকীকরণ প্রকল্প (ক্রিম)’ এর মাধ্যমে বাস্তবায়িত ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্ট লোকাল ইনফ্রাস্ট্রাকচার সেন্টার (ক্রিলিক) দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর ঢাকা আগারগাঁও এলজিইডি সদর দপ্তরে প্রশিক্ষণের আয়োজন হয়।

প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী সেখ মোহাম্মদ মহসিন প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

এসময় তিনি বলেন, জলবায়ু ইস্যু বর্তমানে সারা বিশ্বব্যাপী আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। ভবিষ্যতে বাংলাদেশের বড় চ্যালেঞ্জ হবে জলবায়ু পরিবর্তনের সম্ভাব্য প্রভাব মোকাবিলা। পরিকল্পনা প্রণয়ন ও উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়কে মাথায় রেখে এলজিইডির সকল পর্যায়ের প্রকৌশলীদের ভূমিকা রাখতে হবে।

তিনি নিদিষ্ট মেয়াদে প্রকল্প শেষ করা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সঙ্গে প্রকল্প বাস্তবায়ন করার জন্য সবাইকে তাগিদ দেন। সরকারি খাল পুনখনন করে পানি ধরে রাখার বিষয়টি তুলে ধরে তিনি সংশ্লিষ্ট প্রকল্প এলাকায় এই কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য তিনি দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার জন্য উপস্থিত প্রকৌশলীদের বলেন।

জলবায়ু বিষয়ক এই প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান কর্মক্ষেত্রে প্রয়োগের আহ্বান জানান।

প্রশিক্ষণে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এলজিইডি ঢাকা অঞ্চলের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মন্মথ রঞ্জন হালদার, এলজিইডির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পরিকল্পনা) ও প্রকল্প পরিচালক মোঃ জসিম উদ্দিন ও আইডিসি-ক্রিলিকের টিম লিডার ড. ডান বুম।

অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মন্মথ রঞ্জন হালদার বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনে উষ্ণতা বৃদ্ধির তীব্রতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। বাড়ছে ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাসসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে লবণাক্ততা বেড়ে যাচ্ছে। এতে ফসল উৎপাদন কম হচ্ছে, যা অর্থনীতিকে নেতিবাচকভাবে প্রভাবিত করছে। জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সার্বিক উন্নয়নের জন্য আমাদের একত্রে কাজ করতে হবে।

প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন এলজিইডির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ও ক্রিলিকের পরিচালক গোপাল কৃষ্ণ দেবনাথ। তিনি প্রশিক্ষণে জলবায়ু বিষয়ক বিভিন্ন হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করে আগামীতে এলজিইডির প্রকৌশলীদের করণীয় বিষয়ে মূল্যবান বক্তব্য পেশ করেন।

তিনি বলেন, নবায়নযোগ্য জ্বালানি সম্পদের সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে জ্বালানি প্রযুক্তি গ্রামাঞ্চল, উপশহর ও শহর এলাকায় ছড়িয়ে দিতে সবার ভূমিকা রাখতে হবে।

তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পরিকল্পনা) ও প্রকল্প পরিচালক মোঃ জসিম উদ্দিন জলবায়ু প্রাতিষ্ঠানিকীকরণে গৃহীত পদক্ষেপ ও ক্রিলিক প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্য ও কার্যক্রম সম্পর্কে ধারণা দেন।

তিনি বলেন, জলবায়ু সহনশীল অবকাঠামো নির্মাণে প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা উন্নয়নের বিকল্প নেই।

প্রশিক্ষণে এলজিইডি ঢাকা বিভাগের অধীন আটটি জেলার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী, উপ-প্রকল্প পরিচালক, নির্বাহী প্রকৌশলী, উপজেলা প্রকৌশলী, সিনিয়র সহকারী প্রকেীশলী, উপজেলা সহকারী প্রকৌশলীসহ মোট ১২৮জন বিভিন্ন পর্যায়ের প্রকৌশলীগণ অংশগ্রহণ করে।

প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ক্রিলিক-আইডিসির বিশেষজ্ঞ পরামর্শক বান্দা হাফিজ। রউফ আখন্দ, নাজমুল হাকিম ও সৈয়দ মাহবুব আহসান প্রশিক্ষিণে সমন্বয়কারী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

এলজিইডি’র ৮ জেলার প্রকৌশলীদের নিয়ে প্রশিক্ষণ

 সংবাদ বিজ্ঞপ্তি 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এর ‘জলবায়ু সহিষ্ণু অবকাঠামো প্রাতিষ্ঠানিকীকরণ প্রকল্প (ক্রিম)’ এর মাধ্যমে বাস্তবায়িত ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্ট লোকাল ইনফ্রাস্ট্রাকচার সেন্টার (ক্রিলিক) দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর ঢাকা আগারগাঁও এলজিইডি সদর দপ্তরে প্রশিক্ষণের আয়োজন হয়। 

প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী সেখ মোহাম্মদ মহসিন প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। 

এসময় তিনি বলেন, জলবায়ু ইস্যু বর্তমানে সারা বিশ্বব্যাপী আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। ভবিষ্যতে বাংলাদেশের বড় চ্যালেঞ্জ হবে জলবায়ু পরিবর্তনের সম্ভাব্য প্রভাব মোকাবিলা। পরিকল্পনা প্রণয়ন ও উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়কে মাথায় রেখে এলজিইডির সকল পর্যায়ের প্রকৌশলীদের ভূমিকা রাখতে হবে। 

তিনি নিদিষ্ট মেয়াদে প্রকল্প শেষ করা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সঙ্গে প্রকল্প বাস্তবায়ন করার জন্য সবাইকে তাগিদ দেন। সরকারি খাল পুনখনন করে পানি ধরে রাখার বিষয়টি তুলে ধরে তিনি সংশ্লিষ্ট প্রকল্প এলাকায় এই কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য তিনি দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার জন্য উপস্থিত প্রকৌশলীদের বলেন। 

জলবায়ু বিষয়ক এই প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান কর্মক্ষেত্রে প্রয়োগের আহ্বান জানান। 

প্রশিক্ষণে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এলজিইডি ঢাকা অঞ্চলের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মন্মথ রঞ্জন হালদার, এলজিইডির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পরিকল্পনা) ও প্রকল্প পরিচালক মোঃ জসিম উদ্দিন ও আইডিসি-ক্রিলিকের টিম লিডার ড. ডান বুম। 

অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মন্মথ রঞ্জন হালদার বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনে উষ্ণতা বৃদ্ধির তীব্রতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। বাড়ছে ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাসসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে লবণাক্ততা বেড়ে যাচ্ছে। এতে ফসল উৎপাদন কম হচ্ছে, যা অর্থনীতিকে নেতিবাচকভাবে প্রভাবিত করছে। জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সার্বিক উন্নয়নের জন্য আমাদের একত্রে কাজ করতে হবে। 

প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন এলজিইডির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ও ক্রিলিকের পরিচালক গোপাল কৃষ্ণ দেবনাথ। তিনি প্রশিক্ষণে জলবায়ু বিষয়ক বিভিন্ন হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করে আগামীতে এলজিইডির প্রকৌশলীদের করণীয় বিষয়ে মূল্যবান বক্তব্য পেশ করেন। 

তিনি বলেন, নবায়নযোগ্য জ্বালানি সম্পদের সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে জ্বালানি প্রযুক্তি গ্রামাঞ্চল, উপশহর ও শহর এলাকায় ছড়িয়ে দিতে সবার ভূমিকা রাখতে হবে। 

তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পরিকল্পনা) ও প্রকল্প পরিচালক মোঃ জসিম উদ্দিন জলবায়ু প্রাতিষ্ঠানিকীকরণে গৃহীত পদক্ষেপ ও ক্রিলিক প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্য ও কার্যক্রম সম্পর্কে ধারণা দেন। 

তিনি বলেন, জলবায়ু সহনশীল অবকাঠামো নির্মাণে প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা উন্নয়নের বিকল্প নেই।

প্রশিক্ষণে এলজিইডি ঢাকা বিভাগের অধীন আটটি জেলার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী, উপ-প্রকল্প পরিচালক, নির্বাহী প্রকৌশলী, উপজেলা প্রকৌশলী, সিনিয়র সহকারী প্রকেীশলী, উপজেলা সহকারী প্রকৌশলীসহ মোট ১২৮জন বিভিন্ন পর্যায়ের প্রকৌশলীগণ অংশগ্রহণ করে। 

প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ক্রিলিক-আইডিসির বিশেষজ্ঞ পরামর্শক বান্দা হাফিজ। রউফ আখন্দ, নাজমুল হাকিম ও সৈয়দ মাহবুব আহসান প্রশিক্ষিণে সমন্বয়কারী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর