পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি-সম্প্রীতি ও উন্নয়নের জন্য শেখ হাসিনার বিকল্প নাই: পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর
jugantor
পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি-সম্প্রীতি ও উন্নয়নের জন্য শেখ হাসিনার বিকল্প নাই: পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর

  সংবাদ বিজ্ঞপ্তি  

১৭ মার্চ ২০২৩, ২৩:০১:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি-সম্প্রীতি ও উন্নয়নের জন্য শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিক প্রচেষ্টায় আজ পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ের মানুষ শান্তিচুক্তি’র সুফল পাচ্ছেন। এ কথা বলেন পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর।

তিনি বলেন, দেশ আমাদের। এদেশে এতো উন্নয়ন হচ্ছে। মানুষের চাহিদা অনেক। অভাব অফুরন্ত। আমাদের সম্পদ সীমিত। ধাপে ধাপে পার্বত্যাঞ্চলের সকল চাহিদা, সকল অভাব পূরণ করা হবে বলে জানান পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর।

আজ খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার ভাইবোনছড়া ইউনিয়নের মিলেনিয়াম উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এবং ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড’ বাস্তবায়িত ১ হাজার ৭৭ পরিবারের মাঝে সোলার হোম সিস্টেম বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এসব কথা বলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর।

‍'পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রত্যন্ত এলাকায় সোলার প্যানেল স্থাপনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ প্রকল্প -২য় পর্যায়' শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় খাগড়াছড়ির ভাইবোনছড়া ইউনিয়নের ৬টি ওয়ার্ডে ১ হাজার ৭৭ পরিবারের মাঝে সোলার হোম সিস্টেম বিতরণ করা হয়।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাহাড়ের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ যাতে আলো, বাতাস পায় সে ব্যবস্থা করে দিচ্ছেন। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পার্বত্যবাসীদের আলোকিত করছেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিদ্যুৎহীন পার্বত্য অঞ্চলের মানুষের মাঝে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সোলার প্যানেল হোম সিস্টেম বিতরণ করা হচ্ছে। তিনি সোলার প্যানেল বিতরণে কাউকে কোনো টাকা পয়সা দিতে হয় না বলে জানান।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেন, পার্বত্য এলাকার উৎপাদিত ফরমালিনমুক্ত বিভিন্ন ফল, শাক-সবজি দেশে বিদেশে যাচ্ছে। এর ফলে কৃষিতে পার্বত্য অঞ্চলের মানুষ অর্থনৌতিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছে। ২০৪১ সালের আগেই পার্বত্যবাসী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত স্মর্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় গেস্ট অব অনার হিসেবে বক্তব্য রাখেন, শরণার্থী পুর্নবাসন সম্পর্কিত টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান (প্রতিমন্ত্রী পদ-মর্যাদা) কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড’র সোলার হোম সিস্টেমের প্রকল্প পরিচালক ও সদস্য (বাস্তবায়ন) উপ-সচিব মো. হারুন-অর-রশিদ, খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র ও খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্মলেন্দু চৌধুরী, খাগড়াছড়ি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জিনিয়া চাকমা, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও পরিষদের সদস্য কল্যাণ মিত্র বড়ুয়া, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শানে আলম এবং উন্নয়ন বোর্ড-খাগড়াছড়ি প্রকৌশল শাখা’র নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মুজিবুল আলম।

পরে মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি খাগড়াছড়ি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট অডিটোরিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে ৫’শ ১৭জন মেধাবী শিক্ষার্থীর মাঝে দুই কোটি টাকার শিক্ষাবৃত্তি বিতরণ করেন। খাগড়াছড়ির ৯টি উপজেলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪’শ ৪৫ জন ও কলেজ পর্যায়ে ২’শ ৭২জনসহ মোট ৭’শ ১৭ জন মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি বিতরণ করা হয়। কলেজ পর্যায়ে প্রত্যেক মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে ৭হাজার টাকা এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে ১০ হাজার টাকা করে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।

পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি-সম্প্রীতি ও উন্নয়নের জন্য শেখ হাসিনার বিকল্প নাই: পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর

 সংবাদ বিজ্ঞপ্তি 
১৭ মার্চ ২০২৩, ১১:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি-সম্প্রীতি ও উন্নয়নের জন্য শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিক প্রচেষ্টায় আজ পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ের মানুষ শান্তিচুক্তি’র সুফল পাচ্ছেন। এ কথা বলেন পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর। 

তিনি বলেন, দেশ আমাদের। এদেশে এতো উন্নয়ন হচ্ছে। মানুষের চাহিদা অনেক। অভাব অফুরন্ত। আমাদের সম্পদ সীমিত। ধাপে ধাপে পার্বত্যাঞ্চলের সকল চাহিদা, সকল অভাব পূরণ করা হবে বলে জানান পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর। 

আজ খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার ভাইবোনছড়া ইউনিয়নের মিলেনিয়াম উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এবং ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড’ বাস্তবায়িত ১ হাজার ৭৭ পরিবারের মাঝে সোলার হোম সিস্টেম বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এসব কথা বলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর।

‍'পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রত্যন্ত এলাকায় সোলার প্যানেল স্থাপনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ প্রকল্প -২য় পর্যায়' শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় খাগড়াছড়ির ভাইবোনছড়া ইউনিয়নের ৬টি ওয়ার্ডে ১ হাজার ৭৭ পরিবারের মাঝে সোলার হোম সিস্টেম বিতরণ করা হয়। 

মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাহাড়ের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ যাতে আলো, বাতাস পায় সে ব্যবস্থা করে দিচ্ছেন। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পার্বত্যবাসীদের আলোকিত করছেন। 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিদ্যুৎহীন পার্বত্য অঞ্চলের মানুষের মাঝে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সোলার প্যানেল হোম সিস্টেম বিতরণ করা হচ্ছে। তিনি সোলার প্যানেল বিতরণে কাউকে কোনো টাকা পয়সা দিতে হয় না বলে জানান।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেন, পার্বত্য এলাকার উৎপাদিত ফরমালিনমুক্ত বিভিন্ন ফল, শাক-সবজি দেশে বিদেশে যাচ্ছে। এর ফলে কৃষিতে পার্বত্য অঞ্চলের মানুষ অর্থনৌতিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছে। ২০৪১ সালের আগেই পার্বত্যবাসী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত স্মর্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। 

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় গেস্ট অব অনার হিসেবে বক্তব্য রাখেন, শরণার্থী পুর্নবাসন সম্পর্কিত টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান (প্রতিমন্ত্রী পদ-মর্যাদা) কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড’র সোলার হোম সিস্টেমের প্রকল্প পরিচালক ও সদস্য (বাস্তবায়ন) উপ-সচিব মো. হারুন-অর-রশিদ, খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র ও খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্মলেন্দু চৌধুরী, খাগড়াছড়ি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জিনিয়া চাকমা, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও পরিষদের সদস্য কল্যাণ মিত্র বড়ুয়া, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শানে আলম এবং উন্নয়ন বোর্ড-খাগড়াছড়ি প্রকৌশল শাখা’র নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মুজিবুল আলম।

পরে মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি খাগড়াছড়ি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট অডিটোরিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে ৫’শ ১৭জন মেধাবী শিক্ষার্থীর মাঝে দুই কোটি টাকার শিক্ষাবৃত্তি বিতরণ করেন। খাগড়াছড়ির ৯টি উপজেলায়  বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪’শ ৪৫ জন ও কলেজ পর্যায়ে ২’শ ৭২জনসহ মোট ৭’শ ১৭ জন মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি বিতরণ করা হয়। কলেজ পর্যায়ে প্রত্যেক মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে ৭হাজার টাকা এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে ১০ হাজার টাকা করে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন