আড়াইহাজারে নিহত ৪ যুবকের মধ্যে দুজনের পরিচয় মিলেছে

  আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ২২ অক্টোবর ২০১৮, ১৩:০৯ | অনলাইন সংস্করণ

আড়াইহাজারে নিহত ৪ যুবকের মধ্যে দুজনের পরিচয় মিলেছে
আড়াইহাজারে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ৪ যুবক। ছবি: যুগান্তর

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের পাঁচরুখি এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত চার যুবকের মধ্যে দুজনের পরিচয় মিলেছে।

নিহতরা হলেন- সবুজ সরদার (২২) ও লুৎফর রহমান মোল্লা। সবুজ পাবনার আতাইকুলা ইউনিয়নের ধর্মগঞ্জ গ্রামের খায়রুল সর্দারের ছেলে।

রোববার রাতে ও সোমবার সকালে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে এসে নিহতদের পরিচয় শনাক্ত করেন তাদের স্বজনরা।

এদিকে এ ঘটনায় রোববার রাতে পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে অস্ত্র ও হত্যা আইনে দুটি মামলা করেছে।

পুলিশে জানায়, সোমবার সকালে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে এসে সবুজ সরদারের মরদেহ শনাক্ত করেন তার বাবা খায়রুল সর্দার। এ ছাড়া লুৎফর রহমান মোল্লার মরদেহ শনাক্ত করেন তার স্ত্রী রেশমা বেগম। তাদের কাছে মৃতদেহ বুঝিয়ে দেয়া হয়। নিহত লুৎফরের বাবার নাম মনসুর রহমান মোল্লা।

নিহত সবুজের বাবা খায়রুল সর্দার জানান, গত সোমবার গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে ছেলেকে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় বলে সহকর্মীরা জানান। পরে গণমাধ্যমে সংবাদ দেখে ছেলের লাশ শনাক্ত করতে হাসপাতালে এসেছি। ছেলে পাবনার একটি স্থানীয় বেকারিতে কাজ করত। তার সাত মাস বয়সী একটি ছেলেসন্তানও রয়েছে।

লুৎফর রহমানের স্ত্রী রেশমা বেগম বলেন, শুক্রবার বিকালে যাত্রী নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন স্বামী। রাত থেকে তার সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পরে শনিবার সকালে তিনি রামপুরা থানায় এ ব্যাপারে জিডি করেন।

তিনি আরও বলেন, তাদের ঘরে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। ছেলে রিশাদ অষ্টম শ্রেণি ও মেয়ে লিজা চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে। গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে তিনি রফিক আকন্দের ভাড়ায় চালিত মাইক্রোবাসের চালক হিসেবে কাজ শুরু করেন।

নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, মরদেহ ও অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় মামলা হয়েছে। পুলিশ গুরুত্বসহকারে বিষয়টির তদন্ত করছে।

তবে এখনও দুই যুবকের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাদের লাশ দাবি করে কেউ আসেননি।

জানা যায়, রোববার ভোরে আড়াইহাজারের পাঁচরুখি এলাকা থেকে গুলিবিদ্ধ চার যুবকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। চার লাশের মাথাই থেঁতলানো অবস্থায় ছিল। ঘটনাস্থল থেকে গুলি ভর্তি দুটি পিস্তল ও একটি সিলভার রঙের মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো চ-১৩-০৫০১) জব্দ করা হয়। লাশের শরীরের রক্তগুলো জমাট বাঁধা ছিল। তবে কী কারণে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter