জার্মান রাষ্ট্রদূতের বরিশাল ও গোপালগঞ্জ সফর

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:২৯ | অনলাইন সংস্করণ

জার্মান রাষ্ট্রদূত পিটার ফাহরেনহল্টজের সঙ্গে শের-ই-বাংলা এ.কে ফজলুল হকের নাতি এ.কে ফাইয়াজুল হক রাজু। ছবি: যুগান্তর
জার্মান রাষ্ট্রদূত পিটার ফাহরেনহল্টজের সঙ্গে শের-ই-বাংলা এ.কে ফজলুল হকের নাতি এ.কে ফাইয়াজুল হক রাজু। ছবি: যুগান্তর

ঢাকায় জার্মানির রাষ্ট্রদূত পিটার ফাহরেনহল্টজ মঙ্গলবার বরিশাল ও গোপালগঞ্জ সফরে গিয়েছিলেন। বিমানে ঢাকা থেকে তিনি বরিশাল বিমানবন্দরে অবতরণ করেন।

এ সময় বরিশাল জেলা প্রশাসনের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাসহ শত শত লোক তাকে স্বাগত জানান। এর পর তিনি সরাসরি বরিশাল সিটি কর্পোরেশন কার্যালয়ে চলে যান। সেখানে নতুন নির্বাচিত মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহর সঙ্গে তিনি বৈঠক করেন।

এ সময় পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে জার্মান রাষ্ট্রদূতকে আগামী পাঁচ বছরের উন্নয়ন পরিকল্পনা দেখান বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা।

মঙ্গলবার রাতে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, গত ১০ বছরে বাংলাদেশের অর্জন ব্যাপক। অর্থনৈতিক উন্নয়নে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। অচিরেই বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে।

তিনি বাংলাদেশর কাঠামোগত পরিবর্তনের ভূয়শী প্রশংসা করেন।বাংলাদেশের উন্নয়ন উত্তর উত্তর বৃদ্ধি পাবে। জার্মানী বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী। আমরা বাংলাদেশকে জলবায়ূ পরিবর্তন, ইলেট্রনিক্স পাসপোর্ট, গুড গভার্নেসসহ বিভিন্নভাবে সহায়তা করছি। জামানী সব সময় বাংলাদেশের জনগণের সঙ্গে আছে।

জার্মান বাষ্ট্রদূত বলেন, আমি বাংলাদেশের ইতিহাস, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য চর্চা করেছি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি আমার গভীর শ্রদ্ধা রয়েছে। বাঙালি জাতির মহানায়কের স্মৃতিসৌধে এসে তার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি।

এর আগে টুঙ্গিপাড়া পৌঁছে জার্মানী রাষ্ট্রদূত পিটার ফাহরেনহোল্জ জাতিরপিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধের বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে তিনি বঙ্গবন্ধুর আত্মার শান্তি কামনায় বিশেষ প্রার্থনা করেন। সন্ধ্যার পর জার্মানী রাষ্ট্রদূত টুঙ্গিপাড়া বঙ্গবন্ধু ভবনে প্রবেশ করেন। সেখানে রক্ষিত পরিদর্শন বইতে তিনি মন্তব্য লিখে স্বাক্ষর করেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও জাতীয় নেতা শের-ই-বাংলা এ.কে ফজলুল হকের নাতি এ.কে ফাইয়াজুল হক রাজু রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ছিলেন। এরপর কেন্দ্রীয় বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ প্রজম্ম লীগের পক্ষ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। পরে নেতৃবৃন্দ পবিত্র ফাতেহাপাঠ ও বঙ্গবন্ধুর রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মোনাজাত করেন।

এ সময় সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. শরীফ খান, সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, আবু তৌহিদ, বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ প্রজম্ম লীগের গোপালগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি এস.এম জামিল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক তানভীর হোসেনসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বরিশালে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের প্রতিকূলতা মোকাবেলায় ১১০ কোটি টাকা আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে জার্মান সরকার।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×