ভালুকায় মহাসড়কে ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ২

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

ত্রিমুখি সংর্ঘষে শিশুসহ ২ জন নিহত
ত্রিমুখি সংর্ঘষে শিশুসহ ২ জন নিহত। ছবি: যুগান্তর

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভালুকা পৌরসভার খীরু ব্রিজের ওপর উল্টো দিক থেকে আসা অটোরিকশার সঙ্গে ত্রিমুখি সংর্ঘষে শিশুসহ ২ জন নিহত ও ৫ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন অটোরিকশার চালক উপজেলার মল্লিকবাড়ি গ্রামে মৃত আবদুর রহমানের ছেলে আব্দুল হেকিম (৫৫) ও ভালুকা পৌর সভার ৮নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা সোহেল মিয়ার ছেলে রাব্বী (১০)।

স্থানীয় ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার সময় ভালুকা বাজার থেকে যাত্রী নিয়ে একটি অটোরিকশা ঢাকামুখী যাওয়ার সময় খিরু ব্রিজের ওপর ভালুকাগামী একটি পিকআপ পেছন থেকে একটি অটোরিকশাকে ধাক্কা দেয়। ধাক্কা লেগে সেই অটোরিকশাটি বিপরীত দিক থেকে আসা অপর একটি রিকশাকে ধাক্কা দিলে ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এতে ৭ জন আহত হয়। আহতদের প্রথমে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর অটোরিকশার চালক উপজেলার মল্লিকবাড়ি গ্রামে আবদুল হেকিম ও রাব্বী মারা যান।

দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন নিহত রাব্বীর বাবা সোহেল (৩০) তার মা দোলেনা আক্তার (২৫), দিনাজপুর জেলার নরেশ কুমারের ছেলে চঞ্চল কুমার (৩২),গফরগাঁও উপজেলার আন্তাজ আলীর ছেলে নবী হোসেন (৪০), উপজেলার বাশিল গ্রামের কামরুল হোসেনের স্ত্রী হালিমা আক্তার ও হবিরবাড়ি গ্রামের হারুন মিয়ার মেয়ে হাবীবা আক্তার (১২)।

পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা দুলাল মিয়া অভিযোগ করেন, ভালুকার ট্রাফিক ইন্সপেক্টার আসাদুজ্জামান আসাদের উদাসীনতায় আজকের এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি যদি মহাসড়কে উল্টো পথে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশাগুলো চলতে না দিতেন তাহলে এসব দুর্ঘটনা ঘটত না। এ ছাড়াও তিনি ভালুকা বাসস্ট্যান্ডের উত্তর পাশের ইউটার্নটি দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ করে রেখেছেন। যার ফলে ভালুকা বাজার থেকে আসা অটোরিকশা, মোটরসাইকেলসহ সব ধরনের যানবাহন ভালুকা বাসস্ট্যান্ডে এসে উল্টো দিকে রাস্তায় চলাচল করে। এতে প্রতি নিয়তই বাসস্ট্যান্ডে জ্যাম ও দুর্ঘটনা ঘটছে।

এ ব্যাপার বক্তব্য নেয়ার জন্য ট্রাফিক ইন্সেপেক্টর (টিআই) আসাদের মোবাইলে ফোন করার পর তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

দুর্ঘটনায় বিষয়টি ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশের ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবদুস ছালাম দুর্ঘটনার নিহত ও আহতের বিষয়টি নিশ্চত করেছেন। এ ঘটনায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×