পুলিশকে মারধরের মামলায় ভৈরব বিএনপির সভাপতিসহ আসামি ৩৫০

  ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

কিশোরগঞ্জ

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে পুলিশকে মারধর ও বিস্ফোরকদ্রব্য ব্যবহারে অভিযোগে সাড়ে ৩০০ বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা। সোমবার সকালে উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. রফিকুল ইসলামকে প্রধান আসামিসহ ৩৫ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ৩০০ জনকে আসামি করে ভৈরব থানায় এ মামলা হয়।

ভৈরব থানার পরির্দশক (তদন্ত) বাহালুল আলম খান জানান, রোববার সন্ধ্যায় শহরের চন্ডিবের এলাকায় উপজেলা বিএনপি একটি নির্বাচনী কর্মিসভাকে কেন্দ্র করে পুলিশের ৩ সদ্যসকে মারধোর ও বিস্ফোরকদ্রব্য ব্যবহারের অভিযোগে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশের এসআই অভিজিৎ চৌধুরী। অভিযুক্তদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, রোববার সন্ধ্যায় শহরের চন্ডিবের এলাকায় একটি নির্বাচনী কর্মিসভা করছিল। বিএনপির এ কর্মিসভাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ বিএনপির সংঘর্ষে পুলিশসহ ১২ জন আহত হয়। ওই ঘটনায় পুলিশের এসআই অভিজিৎ, পুলিশ কনস্টেবল আবদুল হাকিম, কনস্টেবল আবদুর রহমানসহ মোট ১২ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

এ সময় ৫-৬টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যুবলীগও ছাত্রলীগ কর্মীরা হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্তদের। এছাড়াও রাত ৯টায় যুবলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীরা উপজেলা বিএনপির ভৈরব বাজারের ডাইলপট্টির অফিস ভাঙচুর করেছে বলে জানায় বিএনপির নেতাকর্মীরা।

খবর পেয়ে ভৈরব থানার উপপরিদর্শক অভিজিৎ চৌধুরীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। এ সময় ইটপাটকেলের আঘাতে পুলিশের ৩ জন আহত হন। একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যদের নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুজ্জামান।

এদিকে উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম দাবি করেন, তারা ওই এলাকার একটি বাড়িতে নির্বাচনী উঠান বৈঠক করার সময় পৌর যুবলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীরা অতর্কিতে হামলা চালায়। এতে তিনিসহ ৪ জন নেতাকর্মী আহত হন। এ ছাড়া দলের কর্মী-সমর্থকদের ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান, রেস্তোরাঁয় ও দলীয় অফিস হামলা করে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয় বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পৌর যুবলীগের সভাপতি মো. ইমরান হোসেন ইমন জানান, তিনি তার কয়েকজন নেতাকর্মী নিয়ে ছাত্রলীগের একটি অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন ওইপথে। তাদের দেখামাত্রই বিএনপি সমর্থকরা তাদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় বিএনপির নেতাকর্মীদের হামলায় তিনিসহ তার ৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

তিনি বলেন, ভৈরব বাজারের রেস্তোরাঁ ও বিএনপির অফিস আমরা ভাঙচুর করেনি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×