নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
jugantor
নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

০২ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:৪৬:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

নারায়ণগঞ্জে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ হাসান নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

র‌্যাবের দাবি, নিহত হাসান তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী ও মাদক বিক্রেতা। তার বিরুদ্ধে তিনটি হত্যা, তিনটি অস্ত্র, ডাকাতি ও মাদকসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২০টি মামলা রয়েছে। প্রতিটি মামলায় তিনি ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসমি ছিলেন।

রোববার ভোরে শহরের আলামীননগর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

নিহত হাসান শহরের দেওভোগ পানির ট্যাংকি এলাকার মৃত ইয়াছিন মিয়ার ছেলে।

র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র এএসপি আলেপ উদ্দিন জানান, শহরের আলামীননগর এলাকায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হাসান বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে আলামীননগর এলাকায় একটি বাড়িতে অবস্থান করছে। এ সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব ভোরে সেখানে অভিযান চালিয়ে বাড়িটি ঘিরে ফেলে।

র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ির ভেতর থেকে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু হয়। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়।

প্রায় বিশ মিনিট গুলি বিনিময়ের পর র‌্যাব বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসানকে পড়ে থাকতে দেখে।

পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে নারায়ণগঞ্জ ১৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে লাশ ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি ও দুই হাজার ৫০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

এসময় আলম ও আলামীন নামের দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা।

নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
০২ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:৪৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত সেলিম। ছবি: যুগান্তর

নারায়ণগঞ্জে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ হাসান নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

র‌্যাবের দাবি, নিহত হাসান তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী ও মাদক বিক্রেতা। তার বিরুদ্ধে তিনটি হত্যা, তিনটি অস্ত্র, ডাকাতি ও মাদকসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২০টি মামলা রয়েছে। প্রতিটি মামলায় তিনি ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসমি ছিলেন। 

রোববার ভোরে শহরের আলামীননগর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

নিহত হাসান শহরের দেওভোগ পানির ট্যাংকি এলাকার মৃত ইয়াছিন মিয়ার ছেলে।

র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র এএসপি আলেপ উদ্দিন জানান, শহরের আলামীননগর এলাকায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হাসান বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে আলামীননগর এলাকায় একটি বাড়িতে অবস্থান করছে। এ সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব ভোরে সেখানে অভিযান চালিয়ে বাড়িটি ঘিরে ফেলে। 

র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ির ভেতর থেকে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু হয়। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। 

প্রায় বিশ মিনিট গুলি বিনিময়ের পর র‌্যাব বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসানকে পড়ে থাকতে দেখে। 

পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে নারায়ণগঞ্জ ১৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে লাশ ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি ও দুই হাজার ৫০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। 

এ সময় আলম ও আলামীন নামের দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন