বগুড়ায় গোবরের স্তুপে অজ্ঞাত নারীর লাশ
jugantor
বগুড়ায় গোবরের স্তুপে অজ্ঞাত নারীর লাশ

  বগুড়া ব্যুরো  

১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:৪৫:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

গোবর সারের স্তুপে পুঁতে রাখা লাশ
গোবর সারের স্তুপে পুঁতে রাখা লাশ। ছবি: যুগান্তর

বগুড়ার শিবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় এক নারীকে (৩০) হত্যা করে লাশ গোবর সারের স্তুপে (পাউস) পুঁতে রাখা হয়েছে। শিবগঞ্জ থানা পুলিশ রোববার বিকালে উপজেলার পঞ্চদাস গ্রামে বাঁশঝাঁড়ে পাউসের নিচ থেকে পঁচন ধরা লাশটি উদ্ধার করে।

শিবগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, লাশ পঁচে ফুলে যাওয়ায় সনাক্ত করা সম্ভব হচ্ছে না।

প্রত্যক্ষদর্শী নামুজা গ্রামের আনোয়ার হোসেন ও পুলিশ জানায়, শিবগঞ্জ উপজেলার বুড়িগঞ্জ ইউনিয়নের পঞ্চদাস গ্রামের একটি মাঠের ভিতর পুকুর পাড়ে বাঁশঝাঁড়ে পাউসের স্তুপ আছে। গ্রামবাসীরা সার তৈরির জন্য সেখানে গোবর ফেলেন। রোববার বিকালে এক ব্যক্তি ওই পাউসের মধ্যে এক নারীর লাশের মাথা ও হাত দেখতে পেয়ে চিৎকার করতে থাকেন। তখন গ্রামবাসীরা শিবগঞ্জ থানায় খবর দিলে বিকাল ৫টার দিকে পুলিশ আসে।

পুলিশ গ্রামবাসীদের সহায়তায় পুঁতে রাখা লাশটি উদ্ধার করে। গায়ের রং শ্যামলা ওই নারীর পরনে কালো বোরখার নিচে আকাশী জামা, লাল পাজামা ও পায়ে হিল (উঁচু) জুতা ছিল। দুই কানে দুটি করে সোনার রিং ছিল। শত শত মানুষ ভিড় করলেও কেউ লাশ সনাক্ত করতে পারেনি।

গ্রামবাসীদের ধারণা, দুর্বৃত্তরা ওই নারীকে নিরিবিলি ওই বাঁশঝাঁড়ে এনে ধর্ষণের পর হত্যা করে পাউসের নিচে লাশ পুঁতে রাখে। কুকুর বা শিয়াল লাশটি টেনে বের করেছে।

শিবগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, এটি সম্ভবত ১০-১২ দিন আগের হত্যাকাণ্ড। লাশ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই মৃত্যুর কারণ যাবে।

বগুড়ায় গোবরের স্তুপে অজ্ঞাত নারীর লাশ

 বগুড়া ব্যুরো 
১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গোবর সারের স্তুপে পুঁতে রাখা লাশ
গোবর সারের স্তুপে পুঁতে রাখা লাশ। ছবি: যুগান্তর

বগুড়ার শিবগঞ্জে অজ্ঞাত পরিচয় এক নারীকে (৩০) হত্যা করে লাশ গোবর সারের স্তুপে (পাউস) পুঁতে রাখা হয়েছে। শিবগঞ্জ থানা পুলিশ রোববার বিকালে উপজেলার পঞ্চদাস গ্রামে বাঁশঝাঁড়ে পাউসের নিচ থেকে পঁচন ধরা লাশটি উদ্ধার করে।

শিবগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, লাশ পঁচে ফুলে যাওয়ায় সনাক্ত করা সম্ভব হচ্ছে না।

প্রত্যক্ষদর্শী নামুজা গ্রামের আনোয়ার হোসেন ও পুলিশ জানায়, শিবগঞ্জ উপজেলার বুড়িগঞ্জ ইউনিয়নের পঞ্চদাস গ্রামের একটি মাঠের ভিতর পুকুর পাড়ে বাঁশঝাঁড়ে পাউসের স্তুপ আছে। গ্রামবাসীরা সার তৈরির জন্য সেখানে গোবর ফেলেন। রোববার বিকালে এক ব্যক্তি ওই পাউসের মধ্যে এক নারীর লাশের মাথা ও হাত দেখতে পেয়ে চিৎকার করতে থাকেন। তখন গ্রামবাসীরা শিবগঞ্জ থানায় খবর দিলে বিকাল ৫টার দিকে পুলিশ আসে।

পুলিশ গ্রামবাসীদের সহায়তায় পুঁতে রাখা লাশটি উদ্ধার করে। গায়ের রং শ্যামলা ওই নারীর পরনে কালো বোরখার নিচে আকাশী জামা, লাল পাজামা ও পায়ে হিল (উঁচু) জুতা ছিল। দুই কানে দুটি করে সোনার রিং ছিল। শত শত মানুষ ভিড় করলেও কেউ লাশ সনাক্ত করতে পারেনি।

গ্রামবাসীদের ধারণা, দুর্বৃত্তরা ওই নারীকে নিরিবিলি ওই বাঁশঝাঁড়ে এনে ধর্ষণের পর হত্যা করে পাউসের নিচে লাশ পুঁতে রাখে। কুকুর বা শিয়াল লাশটি টেনে বের করেছে।

শিবগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, এটি সম্ভবত ১০-১২ দিন আগের হত্যাকাণ্ড। লাশ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই মৃত্যুর কারণ যাবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন