বন্দরে ২৭ দিন ধরে পাম্প বিকল

পানির জন্য হাহাকার

  বন্দর (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:১১ | অনলাইন সংস্করণ

বন্দরে ২৭ দিন ধরে পাম্প বিকল

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে ২৭ দিন ধরে ওয়াসার পানির পাম্প বিকল হয়ে তীব্র পানি সংকট বিরাজ করছে।

পানির অভাবে সিটি করপোরেশনের ২৪ ও ২৫ নং ওয়ার্ডের আমিরাবাদ, বক্তারকান্দি, দেউলী চৌরাপাড়া, লক্ষণখোলা, মুছাপুরের দাসেরগা ,পাতাকাটা এলাকার প্রায় ১৫ হাজার লোকের দৈনন্দিন কাজকর্ম ব্যাহত হচ্ছে।

পাম্প বিকল হওয়ায় তিন সপ্তাহ যাবত পানি সরবরাহ করছেনা ওয়াসা। ফলে এলাকায় পানির জন্য হাহাকার বিরাজ করছে। পানি সংগ্রহের জন্য এলাকাবাসীকে নানা জায়গায় ছুটোছুটি করতে দেখা যায়।

মাত্র ৪ মাস আগে লক্ষণখোলা পাম্পটি সংস্কার করে ওয়াসা। ওয়াসা জানায়, লক্ষণখোলা পাম্পের বোরিং নষ্ট হয়ে গেছে। নতুন পাম্প স্থাপন করতে হবে।

শনিবার ২৫ নং ওয়ার্ডের চৌরাপাড়া ও লক্ষণখোলা এলাকায় সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে , গ্রাহকের বাড়ির কলে মোটেও পানি আসছেনা। রাস্তায় স্থাপন করা কল থেকে এবং ওয়াসার গাড়ি থেকে লাইন দিয়ে পানি সংগ্রহ করছেন বাসিন্দারা। আশপাশের কারখানা থেকেও পানি সংগ্রহ করতে দেখা গেছে।

দাসেরগা এলাকার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা সফিউদ্দিন আহমেদ জানান, একমাস ধরে পাম্পটি বিকল হয়েছে। দীর্ঘ সময়েও ঠিক করার কোন উদ্যোগ নেয়নি ওয়াসা। পানির এত সংকট যে, ওজুর পানি পর্যন্ত পাওয়া যাচ্ছেনা। বিভিন্ন জায়গায় থেকে বহু কষ্টে শুধু খাবার পানি সংগ্রহ করছেন মানুষ।

বন্দর নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক কবির সোহেল জানান, আন্দোলনের মুখে মাত্র ৪ মাস আগে পাম্পটি মেরামত করা হয়। অজ্ঞাত কারণে আবারও নষ্ট হয়ে গেছে। ফলে এলাকায় বিরাজ করছে তীব্র পানি সংকট। বিকল্প ব্যবস্থায় পানি সরবরাহ করছে না ওয়াসা। সংস্কার কিংবা নতুন পাম্প স্থাপনের কোন উদ্যোগও দেখা যাচ্ছেনা।

২৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আবদুল লতিফ জানান, এলাকাবাসী আগে টিউবঅয়েলের মাধ্যমে খাবার পানির চাহিদা পূরণ করতো । সম্প্রতি এই এলাকায় পানি সরবরাহের দায়িত্ব নেয় ঢাকা ওয়াসা। প্রায় ৫ বছর আগে দাসেরগাঁ এলাকায় স্থাপন করা হয় লক্ষণখোলা পাম্প হাউস। অজ্ঞাত কারণে পাম্পটি বছরের বেশীরভাগ সময় বিকল থাকে। নিয়মিত বিল পরিশোধ করেও পানির কষ্ট থেকে মুক্তি পাননি এলাকাবাসী।

এ ব্যাপারে নাসিক ২৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এনায়েত হোসেন জানান, পাম্প বিকল হওয়ায় এলাকায় পানি সংকট চলছে। বর্তমানে ১০টি পানির ট্যাংক বসিয়ে পানি সরবরাহ করছে ওয়াসা। যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। পুরো এলাকায় পানি দিতে ৩০টি ট্যাংক লাগবে বলে তিনি জানান। এ ব্যাপারে ওয়াসার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।

ঢাকা ওয়াসার নারায়ণগঞ্জ মডস জোনের নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউল আলম জানান, লক্ষণখোলা পাম্প হাউসের বোরিং নষ্ট হয়ে গেছে। সংস্কার কাজ চলছে। ঠিক হতে আরও ১৫ দিন সময় লাগবে। পাশাপাশি একটি নতুন পাম্প স্থাপনের চিন্তাভাবনা চলছে।

নতুন পাম্প স্থাপনে ২ মাস লাগবে। বর্তমানে ৬ টি গাড়িতে করে ওই এলাকায় প্রতি দিন পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। একটি ওয়ার্ডে এর বেশী পানি সরবরাহ করা যায় না। এ ছাড়া বিকল পাম্পের নিকটবর্তী চৌরাপাড়া সোমবারিয়া বাজার পাম্পের উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×