কেমন আছে ঝিনাইদহের পদ্মা মেঘনা যমুনা ও সাগর

  যুগান্তর ডেস্ক ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:২১ | অনলাইন সংস্করণ

পদ্মা মেঘনা যমুনা ও সাগর
পদ্মা মেঘনা যমুনা ও সাগর। ফাইল ছবি

গত ২৩ নভেম্বর ঝিনাইদহে একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দেন মীরা ও মাহবুব দম্পতি। যশোরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তিন মেয়ে ও এক ছেলে প্রসব করেন মীরা খাতুন (২৩)।

হাসপাতালটির গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. নিকুঞ্জ বিহারী গোলদার ঘণ্টাব্যাপী অস্ত্রোপচার সম্পন্ন করে চার শিশুকে আলোর মুখ দেখান।

এদের মধ্যে মেয়ে তিনটির নাম রাখা হয়েছে পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা। ছেলেটির নাম রাখা হয়েছে সাগর। চার সন্তানকে নিয়ে শত কষ্ট হলেও তাদের বাড়ি গিয়ে সেটি বোঝার উপায় নেই।

তাদের বাড়ি গিয়ে দেখা যায়, নানির কোলে যমুনা, খালা নিয়ে বসে আছেন পদ্মাকে, মায়ের কোলে আছে মেঘনা আর আরেক নানির কোলে সাগর। চলছে তাদের সেবাযত্ন।

কিন্তু এত খুশির মাঝেও প্রধান সমস্যা যেটি তা হলো অর্থ। প্রতিদিন দুধ আর ওষুধ মিলিয়ে প্রয়োজন হয় হাজার টাকার। কিন্তু দিনমজুর নানা অলিয়ার রহমান ও বেসরকারি কোম্পানির সরবরাহকারী বাবা মাহবুবুর রহমানের পক্ষে এত টাকা জোগাড় করা খুবই কঠিন।

মীরা জানান, সন্তানদের দেখাশোনা করার জন্য বাড়িতে সবসময় লোকজন থাকতে হচ্ছে। শিশুদের নানি-খালারা এসে সময় দিচ্ছেন। রাতে চারজন চারটি শিশু নিয়ে ঘুমান। তবে মা হিসেবে তাকে সবার দেখভাল করতে হয়।

মাহবুবুর রহমান জানান, একসঙ্গে চার সন্তান নিয়ে তিনি বেশি চিন্তিত নন। চিন্তা তাদের কীভাবে লালন পালন করবেন। তিনি মাত্র আট হাজার টাকার বেতনে কাজ করেন। এই টাকা আর শ্বশুরের আয় দিয়ে এদের বাঁচানো খুবই কষ্টকর।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×