গাইবান্ধা-৩ আসনে ভোটগ্রহণ রোববার, প্রস্তুতি সম্পন্ন
jugantor
গাইবান্ধা-৩ আসনে ভোটগ্রহণ রোববার, প্রস্তুতি সম্পন্ন

  গাইবান্ধা প্রতিনিধি  

২৬ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:২৪:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

স্থগিত গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে রোববার জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ হবে। এ জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন উপলক্ষে সাদুল্যাপুর ও পলাশবাড়ি উপজেলায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এ নির্বাচনে মোট ৫ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হচ্ছেন- মহাজোটভুক্ত আওয়ামী লীগ প্রার্থী সংসদ সদস্য ডা. ইউনুস আলী সরকার (নৌকা), জাতীয় পার্টি (এ) প্রার্থী দিলারা খন্দকার (লাঙ্গল), জাসদ প্রার্থী এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদি (মশাল), ন্যাশনাল পিপলস পার্টি-এনপিপির মিজানুর রহমান তিতু (আম) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু জাফর মো. জাহিদ (সিংহ)।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সহকারী রিটার্নিং অফিসার মাহবুবুর রহমান বলেন, ভোটগ্রহণের সব প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। সাদুল্যাপুরের ১১টি ও পলাশবাড়ী উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত গাইবান্ধা-৩ আসন। মোট ভোটকেন্দ্র ১৩২টি। এ জন্য ১৩২ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ৭৮৬ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও ১ হাজার ৫৭২ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে। মোট ভোটার ৪ লাখ ১১ হাজার ৮৫৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৭৪৬ জন এবং নারী ২ লাখ ১১ হাজার ১০৮ জন।

গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া জানান, নির্বাচনের দিন দুই উপজেলায় আড়াই হাজার পুলিশ সদস্য, বিজিপি ২০ প্লাটুন, র‌্যাব ২০ প্লাটুন ও ১ হাজার ৫৮৪ জন আনসার নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবে।

উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঐক্যফ্রন্ট সমর্থিত ধানের শীষের প্রার্থী জাপার (জাফর) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড. টিআইএম ফজলে রাব্বী চৌধুরী গত ২০ ডিসেম্বর মারা যান। ফলে নির্বাচন কমিশন এ আসনের নির্বাচন স্থগিত করে পুনঃতফসিল অনুযায়ী ২৭ জানুয়ারি ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করেন।

গাইবান্ধা-৩ আসনে ভোটগ্রহণ রোববার, প্রস্তুতি সম্পন্ন

 গাইবান্ধা প্রতিনিধি 
২৬ জানুয়ারি ২০১৯, ০৮:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্থগিত গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে রোববার জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ হবে। এ জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন উপলক্ষে সাদুল্যাপুর ও পলাশবাড়ি উপজেলায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

এ নির্বাচনে মোট ৫ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হচ্ছেন- মহাজোটভুক্ত আওয়ামী লীগ প্রার্থী সংসদ সদস্য ডা. ইউনুস আলী সরকার (নৌকা), জাতীয় পার্টি (এ) প্রার্থী দিলারা খন্দকার (লাঙ্গল), জাসদ প্রার্থী এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদি (মশাল), ন্যাশনাল পিপলস পার্টি-এনপিপির মিজানুর রহমান তিতু (আম) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু জাফর মো. জাহিদ (সিংহ)।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সহকারী রিটার্নিং অফিসার মাহবুবুর রহমান বলেন, ভোটগ্রহণের সব প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। সাদুল্যাপুরের ১১টি ও পলাশবাড়ী উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত গাইবান্ধা-৩ আসন। মোট ভোটকেন্দ্র ১৩২টি। এ জন্য ১৩২ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ৭৮৬ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও ১ হাজার ৫৭২ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে। মোট ভোটার ৪ লাখ ১১ হাজার ৮৫৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৭৪৬ জন এবং নারী ২ লাখ ১১ হাজার ১০৮ জন।

গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া জানান, নির্বাচনের দিন দুই উপজেলায় আড়াই হাজার পুলিশ সদস্য, বিজিপি ২০ প্লাটুন, র‌্যাব ২০ প্লাটুন ও ১ হাজার ৫৮৪ জন আনসার নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবে।

উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঐক্যফ্রন্ট সমর্থিত ধানের শীষের প্রার্থী জাপার (জাফর) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড. টিআইএম ফজলে রাব্বী চৌধুরী গত ২০ ডিসেম্বর মারা যান। ফলে নির্বাচন কমিশন এ আসনের নির্বাচন স্থগিত করে পুনঃতফসিল অনুযায়ী ২৭ জানুয়ারি ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করেন।