কালকিনিতে দুই কেন্দ্র সচিবসহ ২৬ শিক্ষককে অব্যাহতি

প্রকাশ : ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

  কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি

২০১৮ সালের প্রশ্নপত্র

মাদারীপুরের কালকিনিতে এসএসসি পরীক্ষার বাংলা প্রথমপত্র পরীক্ষায় ২০১৮ সালের প্রশ্নপত্র ও ১০১৯ সালের নৈবত্তিক দিয়ে পরীক্ষা হওয়ায় বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেছে পরীক্ষার্থীরা।

শনিবার বিকালে উপজেলার খাসেরহাট সৈয়দ আবুল হোসেন স্কুল এ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। পরে মাদারীপুর জেলা প্রশাসকের আশ্বাসে সড়ক অবরোধ তুলে নেন শিক্ষার্থীরা।

এ ঘটনায় দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে এনে রোববার ওই পরীক্ষার দুই কেন্দ্রের সচিবসহ ২৬ জন শিক্ষককে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

খাসেরহাট সৈয়দ আবুল হোসেন স্কুল এ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রের তথ্য মতে, ২০১৯ সালের এবারের এসএসসি পরীক্ষায় ওই পরীক্ষা কেন্দ্রে মোট ৬০৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। তাদের মধ্যে প্রায় সব পরীক্ষার্থীকে ২০১৮ সালের পুরানো প্রশ্নপত্র ও ১০১৯ সালে নৈর্বেত্তিক প্রশ্ন দেয়া হয়। পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে এই সমস্যার প্রতিবাদ করলেও পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে কোনো প্রকার সমাধান করা হয়নি।

পরীক্ষা শেষে সব শিক্ষার্থীরা একত্র হয়ে কালকিনি-খাসেরহাট সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে। প্রায় দুই ঘণ্টা পরে জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলামের আশ্বাসে সড়কের অবরোধ তুলে নেয় শিক্ষার্থীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন পরীক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে আমরা এই সমস্যার প্রতিবাদ করলেও পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে কোনো প্রকার সমাধান করা হয়নি। পরে পরীক্ষা শেষে আমরা সকল শিক্ষার্থীরা একত্রে হয়ে কালকিনি-খাসেরহাট সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেছি।

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব, পরীক্ষা কমিটি ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করা হয়েছে। এ বিষয়ে সমাধানের জন্য ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা হয়েছে। আশা করছি সমস্যা সমাধান হবে। শিক্ষার্থীদের কোনো ক্ষতি হবে না।

তিনি আরও বলেন, ওই কেন্দ্রের সচিবসহ কেন্দ্রের সব শিক্ষককে অব্যহতি দেয়া হয়েছে। সেখানে নতুন শিক্ষক দেয়া হয়েছে।