জিজ্ঞাসাবাদে মিতুর ‘গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর’ তথ্য

  চট্টগ্রাম ব্যুরো ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:২১ | অনলাইন সংস্করণ

রিমান্ডের আগে ডা. আকাশের স্ত্রী তানজিলা হক চৌধুরী মিতু
রিমান্ডের আগে ডা. আকাশের স্ত্রী তানজিলা হক চৌধুরী মিতু। ছবি-যুগান্তর

চট্টগ্রামে আত্মহত্যা করা চিকিৎসক মোস্তফা মোরশেদ আকাশের স্ত্রী তানজিলা হক চৌধুরী মিতু জিজ্ঞাসাবাদে ‘গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর’ তথ্য দিয়েছেন পুলিশকে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও চান্দগাঁও থানার এসআই আবদুল কাদের যুগান্তরকে বলেন, ‘তিন দিনের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে মিতু বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ ও চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন। তার দেয়া তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে বলে আদালতকে অবহিত করা হয়েছে।’

তদন্তসংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা যুগান্তরকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

পুলিশের ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদে মিতু জানায়, বিয়ের পরও একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক তথা দাম্পত্য জীবনে টানাপোড়েন নিয়ে নানা কথা। তবে ডা. আকাশের এমন মৃত্যু কামনা করেননি জানিয়ে স্বামী আকাশের মৃত্যু তাকে কষ্ট দিয়েছে বলে জানান।’

এছাড়া রিমান্ডে মিতুকে নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগমসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন।

তিন দিনের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শনিবার দুপুরে মিতুকে আদালতে সোপর্দ করে চান্দগাঁও থানা পুলিশ। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

গত ৪ ফেব্রুয়ারি চান্দগাঁও থানা পুলিশ মিতুকে জিজ্ঞাসাবাদে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন জানালে শুনানি শেষে আদালত মিতুর ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

এর আগে গতকাল শুক্রবার মিতুকে জিজ্ঞাসাবাদের বিভিন্ন তথ্য সাংবাদিকদের জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও চান্দগাঁও থানার এসআই আবদুল কাদের।

এদিন তিনি বলেন, রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের প্রথম দিন মিতু বিয়ের পর বিভিন্ন জনের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকার কথা জানালেও শারীরিক সম্পর্কের কথা অস্বীকার করেন।

আবদুল কাদের বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে বিয়ের পরও একাধিক বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে মিতুর অনৈতিক সম্পর্ক ছিল।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আরও বলেন, ৬ জনের বিরুদ্ধে আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলা হলেও এখন পর্যন্ত শুধুমাত্র মিতুকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। পলাতক ৫ আসামির মধ্যে মিতুর পিতা আনিসুল হক চৌধুরী ও মিতুর বয়ফ্রেন্ড ডা. মাহাবুবুল আলম দেশে আছেন। তাদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। অন্যদিকে মিতুর মা শামীমা শেলী, ছোট বোন সানজিলা হক চৌধুরী আলিশা এবং উত্তম প্যাটেল আমেরিকায় অবস্থান করছেন।

আমেরিকায় অবস্থানকালে উত্তম প্যাটেল নামে এক বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে একাধিক বার অনৈতিক সম্পর্কে জড়ায় মিতু।

এর আগে দেশে ডা. মাহাবুবুল আলম নামের কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের এক বয়ফ্রেন্ডর সঙ্গেও অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়েছিল মিতু।

এছাড়া শোভন নামে চুয়েটের এক ছাত্রসহ একাধিক ছেলে বন্ধু থাকার কথা স্বীকার করলেও এদের সঙ্গে শুধুই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকার কথা জানিয়েছে পুলিশকে।

গত ৩১ জানুয়ারি ভোরে স্ত্রীর অনৈতিক সম্পর্ক মেনে নিতে না পেরে নিজ শরীরে ইনজেকশন পুশ করে আত্মহত্যা করেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক মোস্তফা মোরশেদ আকাশ।

মৃত্যুর আগে তিনি ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে প্যাটেল, মাহাবুবসহ একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে স্ত্রীর অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ আনেন এবং তার আত্মহত্যার জন্য স্ত্রী দায়ী বলে উল্লেখ করেন।

এ ঘটনায় আকাশের স্ত্রীসহ ৬ জনকে আসামি করে আত্মহত্যা প্ররোচনার অভিযোগে চান্দগাঁও থানায় মামলা দায়ের করা হয়। এরপর গত ১ জানুয়ারি রাতে নগরীর নন্দন কানন এলাকায় খালাত ভাইয়ের বাসা থেকে পুলিশ মিতুকে গ্রেফতার করে।

ঘটনাপ্রবাহ : চট্টগ্রামে ডা. আকাশের আত্মহত্যা

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×