চট্টগ্রামে টাকা না পেয়ে ভাবিকে খুন, রিমান্ডে দেবরের চাঞ্চল্যকর তথ্য

  চট্টগ্রাম ব্যুরো ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:৫২ | অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামে টাকা না পেয়ে ভাবিকে খুন, রিমান্ডে দেবরের চাঞ্চল্যকর তথ্য
ছবি-যুগান্তর

চট্টগ্রামে টাকা চেয়ে না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে ভাবিকে খুন করেছে দেবর মো. ফরহাদ হোসেন লিমন (২২) নামের এক যুবক। খুনের পর স্বর্ণালঙ্কারসহ দামি জিনিসপত্র নিয়ে যায় সে। এরপর এ ঘটনাকে চুরি হিসেবে প্রমাণেরও চেষ্টা করে। তবে শেষ রক্ষা হয়নি।

গ্রেফতারের পর রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে লিমন খুনের ঘটনা স্বীকার করে পুলিশকে বলেছে, সে টিভিতে ভারতীয় সিরিয়াল ‘ক্রাইম পেট্রোল’ নিয়মিত দেখত। সিরিয়ালটিতে খুনের ঘটনাগুলো দেখে সে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে উদ্বুদ্ধ হয় এবং একপর্যায়ে নিজের ভাবিকেই খুন করে।

নিহতের নাম হাসিনা বেগম (৩২)। গত ৮ ফেব্রুয়ারি রাতে নগরীর আকবর শাহ থানা এলাকার ভাড়া বাসা থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে।

সোমবার দামপাড়া পুলিশ লাইন্সে সংবাদ সম্মেলনে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে এসব তথ্য জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ফরহাদ হোসেন লিমন নিয়মিত ভারতীয় ধারাবাহিক ‘ক্রাইম পেট্রোল’ দেখতো। ক্রাইম পেট্রোলে বিভিন্ন হত্যাকাণ্ডের কেস স্টাডিগুলো দেখানো হয়। সেখান থেকে দেখে ভাবিকে খুন করে এ ঘটনাকে চুরি হিসেবে সাজাতে চেষ্টা করে সে।

রিমান্ডের প্রথম দিনে আসামি লিমনের দেয়া তথ্যে পুলিশ লুট হওয়া কানের দুল, চেইন, ব্রেসলেটসহ স্বর্ণালঙ্কার ও অন্যান্য জিনিসপত্র উদ্ধার করে। সাউন্ড বক্সের ভেতরে লুকানো ছিল এসব সামগ্রী।

আমেনা বেগম জানান, দেবর লিমন হাসিনার কাছে টাকা চেয়েছিল কিন্তু পায়নি। এ কারণে সে ক্ষুব্ধ হয়ে খুনের পরিকল্পনা করে। ৮ ফেব্রুয়ারি রাতে হাসিনা বেগমকে ঘুমন্ত অবস্থায় গলা চেপে ধরে শ্বাসরোধে হত্যা করে লিমন। পরে হাসিনা বেগমের মরদেহ বাসার বাইরে আরেকটি কক্ষে তালা মেরে রেখে সটকে পড়ে।

তিনি জানান, পরদিন ফিরে এসে পুলিশ ও এলাকাবসীকে জানায় চোরের দল চুরি করতে এসে তার ভাবিকে খুন করে থাকতে পারে। এর সপক্ষে সে বিভিন্ন তথ্যপ্রমাণও দেয়ার চেষ্টা করে। ঘটনাটিকে যেন চুরির ঘটনা ভেবে কেউ তকে সন্দেহ না করে সে সেভাবেই পরিকল্পনা করে রাখে। তবে পুলিশ ও নিহতের পরিবারের লোকজনের চোখ এড়াতে পারেনি। সন্দেহজনকভাবে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ঘটনার পরদিন হাসিনা বেগমের ভাই মো. মানিক আকবর শাহ থানায় মামলা দায়ের করেন। হত্যাকাণ্ডের পরদিন গ্রেফতারের পর আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত তার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ জানায়, হত্যাকাণ্ডের দিন হাসিনা বেগমের বাসায় টিভি দেখার কথা বলে প্রবেশ করে লিমন। পরে পরিকল্পনা অনুযায়ী হাসিনা বেগমকে খুন করে মরদেহ লুকিয়ে রাখে এবং স্বর্ণালঙ্কারসহ অন্যান্য জিনিসপত্র নিয়ে যায়। হাসিনা বেগম নোয়াখালীর শফিগঞ্জ এলাকার পশ্চিম মাইজচরা গ্রামের মেয়ে।

তিনি আকবর শাহ থানাধীন কালিরহাট ১নম্বর গলিতে ভাড়া বাসায় থাকতেন এবং গার্মেন্টে চাকরি করতেন। তার স্বামী সৌদিপ্রবাসী এবং একমাত্র ছেলে আবির হোসেন (১২) পাহাড়তলী নেছারিয়া মাদ্রাসার হোস্টেলে থেকে পড়াশোনা করছে। একই বিল্ডিংয়ে ব্যাচেলর হিসেবে থাকত তার দেবর গ্রেফতার হওয়া ফরহাদ হোসেন লিমন। লিমন চাঁদপুরের পাইকপাড়া এলাকার আবুল কাশেম পাটোয়ারীর ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে সিএমপির অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (পশ্চিম) মো. কামরুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী কমিশনার (পাহাড়তলী জোন) পংকজ বড়ুয়া, আকবর শাহ থানার ওসি জসিম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×