চৌগাছায় প্রতিপক্ষের হামলায় যুবলীগ নেতা নিহত

  যশোর ব্যুরো ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

চৌগাছায় প্রতিপক্ষের হামলায় যুবলীগ নেতা নিহত
ছবি: যুগান্তর

যশোরের চৌগাছায় দলীয় প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আবদুল বারিক (৪৫) নামে এক ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও একজন।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ফুলসারা ইউনিয়নের চারাবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আবদুল বারিক ফুলসারা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও চারাবাড়ি গ্রামের আজিজুর রহমানের ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আনিসুর রহমানকে (৪০) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগে সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম হাবিবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ফুলসারা ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী মাসুদ চৌধুরীর নেতৃত্বে দুটি গ্রুপ রয়েছে।

আবদুল বারিক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী মাসুদ চৌধুরীর অনুসারী বলে পরিচিত।

চৌগাছা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহতের ভাই আবুল বাশার যুগান্তরকে জানান, দুভাই মিলে নিজেদের একটি পুকুরে মাছ ধরছিলেন। এসময় এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা হামলা করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে ফেলে রেখে যায় তাদের। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাদের হাসপাতালে আনা হয়।

চৌগাছা থানার সেকেন্ড অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এসএম আকিকুল ইসলাম বলেন, নিহত ও হামলাকারীদের বিরুদ্ধে পরস্পরবিরোধী একাধিক মামলা রয়েছে। স্থানীয়ভাবে একাধিকবার মিমাংশার চেষ্টা করা হলেও সেটি মেটেনি।

পূর্ব শত্রু তার জের ধরে রোববার নান্নু, জুলু, আরিফসহ পাঁচ-ছয়জন তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ ঘটনায় আইনি পদক্ষেপের প্রস্তুতি চলছে।

চৌগাছা উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও চৌগাছা উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান দেবাশীষ মিশ্র জয় বলেন, যুবলীগ নেতা আবদুল বারিকের খুনিরা গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগের দিন আওয়ামী লীগে যোগদান করেছিল।

ফুলসারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাঈদুর রহমান পান্নু জানান, আওয়ামী লীগের অপর গ্রুপের চিহ্নিত কয়েকজন সন্ত্রাসী তাদের ওপর হামলা করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়।

স্থানীয়দের সহায়তায় তাদের উদ্ধার করে চৌগাছা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আবদুল বারিককে মৃত ঘোষণা করেন। তার সহোদর আনিসুর রহমানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

চৌগাছা ৫০ শয্যা হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ড. সুরাইয়া পারভীন বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই আবদুল বারিকের মৃত্যু হয়েছে। আর আনিসুর রহমানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

নিহত ও আহত উভয়ের শরীরের একাধিক স্থানে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×