কলাগাছের শহীদ মিনারে রাঙ্গাবালীর শিক্ষার্থীদের শ্রদ্ধা

প্রকাশ : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

  রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

কলাগাছের শহীদ মিনারে রাঙ্গাবালীর শিক্ষার্থীদের শ্রদ্ধা

ভাষা শহীদদের প্রতি তাদের অনেক শ্রদ্ধা। কিন্তু নিজেদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য শহীদ মিনার নেই। তবে শ্রদ্ধাতো জানাতেই হবে। তাই কলাগাছ আর রঙিন কাগজ দিয়ে অস্থায়ী শহীদ মিনার বানিয়েছেন তারা। সেখানেই তারা পুষ্পমাল্য আর ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

বৃহস্পতিবার একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস উপলক্ষে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এভাবেই দিবসটি পালন করে শিক্ষার্থীরা।

তাদের দাবি, প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরকারিভাবে স্থায়ী শহীদ মিনার নির্মাণ করা হোক।

উপজেলার কাছিয়াবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ফাহিম হোসেন বলে, ‘আমাগো স্কুলে শহীদ মিনার নাই। আমরা কলাগাছ দিয়া শহীদ মিনার বানাইছি। সবাই মিলে শহীদ মিনারে ফুল দিছি।’

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার অধিংকাশ স্কুল, মাদ্রাসা ও কলেজে স্থায়ী শহীদ মিনার নেই। প্রতিবছর একুশে ফেব্রুয়ারি এলে একদিন আগে ওইসব প্রতিষ্ঠানে অস্থায়ীভাবে শহীদ মিনার তৈরি করা হয়।

মাটিতে তিন টুকরো কলাগাছ পুঁতে মিনার বানানো হয়। সেই মিনারে রঙিন কাগজ মুড়িয়ে দেয়া হয়। জড়ি আর রঙিন কাগজ দিয়ে সাজানো হয় চারপাশ। এভাবে শিক্ষার্থীদের শ্রমে প্রতিবছরই অস্থায়ী শহীদ মিনার তৈরি করা হয়। সেখানেই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও স্থানীয় বাসিন্দারা।

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন বলেন, ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্থায়ীভাবে শহীদ মিনার নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ প্রয়োজন। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।