মহম্মদপুরে হাতুড়িপেটায় ইউপি সদস্য হত্যা, আতঙ্কে পরিবার

  মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২২:৩৩ | অনলাইন সংস্করণ

মাগুরা

হাতুড়িপেটায় গুরুত্বর আহত হয়ে অবশেষে মারা যান ইউপি সদস্য কাবিল মেম্বার। এই ঘটনার ৮দিন পার হলেও মামলা করার সাহস পাচ্ছে না তার পরিবার।

গত ১৩ই ফ্রেরুয়ারি মাগুরা মহম্মদপুর উপজেলার নহাটার ইউপি সদস্য বিএনপি নেতা প্রতিপক্ষের হাতুড়িপেটায় গুরুত্বর আহত হলে মাগুরা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১৫ই ফ্রেরুয়ারি ভোর রাতে মারা যান তিনি।

ইউপি সদস্য কাবিল মেম্বার হত্যার ৮দিন পার হলেও কোনো মামলা করেনি নিহতের পরিবারের লোকজন। ভয়ে মুখও খুলছেন না নিহতের পরিবার।

নিহত পরিবারের সদস্যদের চোখে-মুখে ভয় আর আতঙ্কের ছাপ। নিহতের পরিবারের লোকজন ভয়ে মুখ খুলছেন না।

নিহত কাবিল মেম্বারের যমজ ভাই হাবিল বলেন, মামলা করলেও তো আমাদের এখানেই বসবাস করতে হবে। তাই মামলা করার আগে একটু ভাবনা চিন্তার বিষয় আছে। এর বেশি তিনি কিছুই বলতে পারবেন না বলে ছাপ জানিয়ে দেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার কয়েকজন এই প্রতিবেদককে জানান, কাবিল মেম্বার নিহতের পর থেকেই ওই পরিবারের লোকজনের প্রতি কড়া নজর রেখেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। যার কারণে তারা মামলা বা অভিযোগ করার মতো কোনো সাহসই পাচ্ছে না। এ ছাড়া মামলা করলে পরিনাম আরও খারাপ হবে বলে ছড়িয়ে বেড়াচ্ছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

নহাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলী মিয়া জানান, সাবেক চেয়ারম্যান লিটন ও তার লোকজন কাবিলকে কয়েকদফা প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছিল। প্রাণে বাঁচতে দীর্ঘদিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল কাবিলসহ গ্রামের অর্ধশত লোক। লিটনের লোকজনই কাবিলকে পরিকল্পিতভাবে মেরে ফেলেছে বলে তিনি জানান।

মহম্মদপুর থানা অফিসার ইনচার্জ রবিউল ইসলাম জানান, কাবিল মেম্বার নিহতের বিষয়ে এখনও অভিযোগ পাইনি। তবে অভিযোগ পেলে মামলা রুজু করে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
--
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×