মনিরামপুরে ২৫ দাখিল পরীক্ষার্থী নিয়ে নৌকাডুবি, এক ছাত্রীর লাশ উদ্ধার

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২২:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

  মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি

নৌকা ডুবে নিহত মাদ্রাসাছাত্রীর স্বজনদের আহাজারি

যশোরের মনিরামপুরে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় নৌকা ডুবে নিখোঁজের প্রায় ৫ ঘণ্টা পর মৌসুমি খাতুন নামের এক দাখিল পরীক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরিদল।

মৃত মৌসুমি উপজেলার পারখাজুরা গ্রামের আবদুর রশিদের মেয়ে।

মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার পারখাজুরা বাঁওড় পার হওয়ার সময় ২৫ দাখিল পরীক্ষার্থীসহ ৩০ যাত্রী নিয়ে এ নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে।

নৌকায় থাকা ২৪ দাখিল পরীক্ষার্থীসহ অন্যরা সাঁতরে পাড়ে উঠতে সক্ষম হলেও নিখোঁজ হয় মৌসুমি।

নিখোঁজ শিক্ষার্থীর সন্ধানে বাঁওড়ে জাল নামানোসহ মনিরামপুর ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের কর্মীরা উদ্ধারকাজে অংশ নেন। পরে খুলনা থেকে প্রশিক্ষিত ৫ ডুবুরি উদ্ধারেকাজে যোগ দেন। যৌথ অভিযানের প্রায় দুই ঘণ্টা পর মৌসুমির লাশ উদ্ধার করা হয়।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং উদ্ধারকাজ সমাপ্ত হওয়া পর্যন্ত অবস্থান করেন।

মৌসুমি পারখাজুরা সিদ্দীকিয়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে দাখিল পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শী নৌকায় থাকা একই মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ফয়সাল জানায়, তারা ২৫ দাখিল পরীক্ষার্থীসহ ৩০ জন নৌকায় করে বাঁওড় পার হচ্ছিল। বাঁওড়ের মাঝখানে পৌঁছলে হঠাৎ দমকা হাওয়ায় নৌকা উল্টে যায়। এ সময় যে যার মতো সাঁতরে পাড়ে উঠে। কিন্তু মৌসুমিকে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে পরীক্ষা দিয়ে ফিরে এসে শুনি মৌসুমির লাশ পাওয়া গেছে। এ সময় হাউমাউ করে কাঁদছিল ফয়সাল।

মাদ্রাসা সুপার একেএম সিফাতুল্লাহ জানান, উপজেলার রাজগঞ্জে কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিতে প্রতিদিনের মতো প্রতিষ্ঠানের ২৫ শিক্ষার্থী পারখাজুরা থেকে নৌকাযোগে নলতা ঘাটে যাচ্ছিল। নৌকা বাঁওড়ের মাঝখানে পৌঁছলে হঠাৎ দমকা হাওয়ায় নৌকা ডুবে যায়। এ সময় ২৪ শিক্ষার্থী সাঁতার কেটে পাড়ে উঠতে সক্ষম হলেও মৌসুমি উঠতে পারেনি। বাকি শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে বলে তিনি জানান।

ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা হুমায়ন কবীর জানান, খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে ছুটে যায় ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের কর্মীরা। পরে খুলনা থেকে প্রশিক্ষিত ৫ ডুবুরিসহ তাদের যৌথ অভিযানের প্রায় দুই ঘণ্টা পর দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে নিখোঁজের লাশ উদ্ধার করেন।

এদিকে নিখোঁজ পরীক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার হওয়া পর্যন্ত ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফী ঘটনাস্থলে অবস্থান করেন। তিনি জানান, এ ঘটনা তদন্ত করা হবে।