চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বরকে পেটাল জনতা

  চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ১০ মার্চ ২০১৯, ২২:৩১ | অনলাইন সংস্করণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

বেপরোয়া চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার বারোঘরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু খায়ের ও সদস্য রঞ্জু খানকে বেধরক পিটিয়েছে স্থানীয় জনতা।

রোববার দুপুরে বারোঘরিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রোববার দুপুর ২টার দিকে চেয়ারম্যান আবু খায়ের ও ৪নং ওয়ার্ড সদস্য রঞ্জু খান গ্রামপুলিশ সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে বারোঘরিয়া বাজারে যান। এসময় তারা ওই বাজারের তিন ব্যবসায়ী খালেক, করিম ও সুকুমারের কাছে চাঁদা দাবি করেন। কাঙ্খিত চাঁদা না পেয়ে চেয়ারম্যান খায়েরের নির্দেশে খালেক, করিম ও সুকুমারের দোকান ভেঙ্গে ফেলে তার লোকজন।

এ সময় বাধা দিতে গিয়ে চেয়ারম্যানের লোকজনের হাতে শ্লীলতাহানির শিকার হন ব্যবসায়ী করিমের দুই বোন রোজান ও হেনাসহ চার নারী।

এই খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে স্থানীয় লোকজন। তারা ঐক্যবদ্ধ হয়ে বারোঘরিয়া বাজারে এসে চেয়ারম্যান আবু খায়ের ও ৪ নং ওয়ার্ড সদস্য রঞ্জু খানকে বেধড়ক পিটুনি দেন। একপর্যায়ে জনতার ধাওয়া খেয়ে পালিয়ে যান তারা। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

ব্যবসায়ী আব্দুল করিম জানান, প্রায় চেয়ারম্যান এসে টাকা চাইতেন তাদের কাছে। রোববার টাকা দেয়ার পরও তার দোকার ভাংচুর করা হয়েছে। এতেই লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে পিটিয়েছেন।

এই ঘটনার প্রতিবাদে বিকেলে বারোঘরিয়া বাজার এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বিক্ষুব্ধ জনতা। এতে বক্তব্য রাখেন সাবেক ইউপি সদস্য জালাল উদ্দিন, লুৎফর রহমান লুটু প্রমুখ।

মানববন্ধন থেকে চাঁদাবাজি, দোকান ভাংচুর ও নারীদের শ্লীলতাহানির জন্য চেয়ারম্যান আবু খায়ের ও ওয়ার্ড সদস্য রঞ্জু খানের বিচার দাবি করা হয়।

এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান আবুল খায়েরের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে চাঁদাবাজি ও নারীদের শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ অস্বীকার করে বারোঘরিয়ার ওয়ার্ড সদস্য রঞ্জু খান বলেন, বাজারের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে কিছু দোকানের স্থান পরিবর্তন করার জন্য ব্যবসায়ীদের নোটিশ দেয় ইউনিয়ন পরিষদ। এই নিয়ে তারা ওই দোকানিদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে চেয়ারম্যানসহ তাকে মারধর করেন ব্যবসায়ীরা। বিষয়টি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর হোসেনকে জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন জানান, ওই বাজারটি উপজেলা প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণাধীন। কাজেই আমাদের না জানিয়ে সেই বাজারের দোকান ভাংচুর করে অন্যায় করেছেন চেয়ারম্যান ও মেম্বর। বিষয়টি তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×