পরিবারের ভাগ্য পরিবর্তনে মহিউদ্দিনের স্বপ্ন ঝুলল বিদ্যুতের তারে!

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি ১৫ মার্চ ২০১৯, ২৩:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক তারের সঙ্গে ঝুলে থাকা রং মিস্ত্রি মহিউদ্দিনের লাশ
১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক তারের সঙ্গে ঝুলে থাকা রং মিস্ত্রি মহিউদ্দিনের লাশ

হতদরিদ্র পরিবারের দুই ভাইয়ের মধ্যে ছোট মো. মহিউদ্দিন (২০)। পেশায় একজন রং মিস্ত্রি। তার পিতা চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার চিকনদণ্ডী ইউনিয়নের তাইমুদ্দিন ও বশিরউল্লাহ ফকির বাড়ির মো. জামাল উদ্দিন। তিনি একজন রিক্সাচালক।

এলাকার ১০টা শিক্ষার্থীদের মতো লেখাপড়ার প্রতি মহিউদ্দিনের যথেষ্ট আগ্রহ থাকলেও পরিবারের দারিদ্রতার কারণে তা আর হয়ে ওঠেনি। দিনে এনে দিনে খাওয়া দরিদ্র পিতা পরিবারের হাল ধরতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে। তাইতো পরিবারের অভাব পূরণ তথা তাদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে তিনি বেছে নেন রং করার কাজ। অল্প দিনেই এলাকায় নামকরা রং মিস্ত্রি হিসেবে তার পরিচিতি লাভ করে।

কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, প্রতিদিনের ন্যায় শুক্রবার সকালে ঘর থেকে বের হয়ে উপজেলার চিকনদণ্ডী ইউনিয়নের চৌধুরী হাটের পূর্বে দাতারাম চৌধুরী বাড়ির বিধান বাবুর একটি চতুর্থ তলা বিশিষ্ট ভবনে রং করার সময় ১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক তারের স্পর্ষে সারা শরীর দগ্ধ হয়ে মহিউদ্দিন ঘটনাস্থলেই মারা যান। একইসঙ্গে শেষ হয়ে যায় দরিদ্র পরিবারের ভাগ্য পরিবর্তনের স্বপ্ন।

ছোট ভাই যে উদ্দেশ্য নিয়ে আমাদের সঙ্গে হতদরিদ্র পরিবারের হাল ধরতে চেয়েছিল তা হলো না বলে অশ্রুসিক্ত কণ্ঠে এ প্রতিবেদককে জানান নিহত মহিউদ্দিনের বড় ভাই নূর উদ্দিন।

তিনি আরও জানান, ওই দিন সকাল সাড়ে ৯টায় সংগঠিত এ ঘটনায় একই এলাকার মো. হারুণের পুত্র মো. হাবিব (২১) নামে নিহত রং মিস্ত্রি মহিউদ্দিনের সহকারী আহত হয়েছেন।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক তারের সঙ্গে ঝুলে থাকা রং মিস্ত্রি মহিউদ্দিনের লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। এ ছাড়া এ ঘটনায় আহত হাবিবকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়।

হাটহাজারী মডেল থানার এসআই অজয় কুমার পাল এ প্রতিবেদককে বলেন, চৌধুরী হাটের পূর্বে দাতারাম চৌধুরী বাড়ির বিধান বাবু নামক এক ব্যাক্তির বিল্ডিংয়ে রং করার সময় ১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক তারের স্পর্ষে সারা শরীর দগ্ধ হয়ে মো. মহিউদ্দিন নামে এক যুবক ঘটনাস্থলেই মারা যায় এবং হাবিব নামে আরেকজন আহত হয়। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই বাদী হয়ে মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

এদিকে নিহতের লাশ তার গ্রামের বাড়িতে পৌঁছুলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধু-বান্ধররা নিহত মহিউদ্দিনকে শেষবারের মত এক নজর দেখতে তার বাড়িতে ভিড় করতে দেখা গেছে। এ সময় তার গর্ভধারিনী মা, বাবা ও বড় ভাইয়ের আহাজারিতে এলাকার আকাশ ভারি হয়ে ওঠে। শোকের ছায়া নেমে আসে নিহতের পরিবারে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
--
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×