ভোটারদের গরু জবাই করে আপ্যায়নের অভিযোগ
jugantor
ভোটারদের গরু জবাই করে আপ্যায়নের অভিযোগ

  ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি  

১৭ মার্চ ২০১৯, ২৩:১৮:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ৫ প্রার্থীকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম (নৌকা),স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ফিরোজুর রহমান ওলিও (আনারস প্রতীক), ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী লোকমান হোসেন (চশমা), আহমেদুল কবির রাজিব (তালা) ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী শামীমা আক্তার (পদ্মফুল)।

রোববার ও শনিবার রাতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. কামরুজ্জামান রঙিন পোস্টার লাগিয়ে প্রচারণা চালানোর অভিযোগে তাদের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন। এছাড়াও তাদেরকে সতর্ক করা হয়।

এদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজুর রহমান ওলিওরের বিরুদ্ধে রিটার্নিং অফিসারের কাছে দুটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম ।

শনিবার দেয়া এসব অভিযোগের একটিতে ফেসবুক লাইভে উসকানিমূলক বক্তব্য প্রচার করে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি এবং ওই প্রার্থীর বাড়িতে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত গরু জবাই করে ভোটারদের আপ্যায়ন করার মাধ্যমে নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা ২০১৬ এর ১৮(ক) ও ১৭(খ) ধারা লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়।

অভিযোগে বলা হয়, একটি ফেসবুক লাইভে ওলিওর ভোটারদের বলেছেন-‘আপনারা ভীত হবেন না,কেউ মারা যান তার দায়িত্ব আমি নেব,আমি ক্ষতিগ্রস্তদের ছেলেমেয়ে ও পরিবার-পরিজনের ভরণ-পোষণের সব দায়িত্ব নেব,আপনারা ভয় পাবেন না’।

অপর অভিযোগে ফিরোজুর রহমান স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েও তার নির্বাচনী পোস্টারে আওয়ামী লীগের স্লোগান ‘জয়বাংলা’ ও ‘জয় বঙ্গবন্ধু’ লিখে ভোটারদের বিভ্রান্ত করছেন বলে অভিযোগ আনা হয়।

যাতে নির্বাচনী আচরণবিধি ৮(৫) ধারা লঙ্ঘন হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়। এ ছাড়া নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন স্থানে বাসাবাড়ির দেয়ালে এবং টিনের ঘরের বেড়ায় পোস্টার সাটানোর মাধ্যমে ফিরোজ আচরণ বিধিমালার ৮(৮)ধারা লঙ্ঘন করেছেন বলে অভিযোগ করেন জাহাঙ্গীর আলম।

এসব অভিযোগের সঙ্গে প্রমাণ হিসেবে ফেসবুকে দেয়া ভিডিও লাইভের ৩টি ফুটেজ,বাচ্চাদের মধ্যে টাকা বিলি করার এবং দেয়ালে পোস্টার সাটানোর স্থির ছবি দেয়া হয়।

তবে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কোনো মন্তব্য করেননি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজুর রহমান ওলিও।

ভোটারদের গরু জবাই করে আপ্যায়নের অভিযোগ

 ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি 
১৭ মার্চ ২০১৯, ১১:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ৫ প্রার্থীকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম (নৌকা),স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ফিরোজুর রহমান ওলিও (আনারস প্রতীক), ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী লোকমান হোসেন (চশমা), আহমেদুল কবির রাজিব (তালা) ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী শামীমা আক্তার (পদ্মফুল)।

রোববার ও শনিবার রাতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. কামরুজ্জামান রঙিন পোস্টার লাগিয়ে প্রচারণা চালানোর অভিযোগে তাদের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন। এছাড়াও তাদেরকে সতর্ক করা হয়।

এদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজুর রহমান ওলিওরের বিরুদ্ধে রিটার্নিং অফিসারের কাছে দুটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম ।

শনিবার দেয়া এসব অভিযোগের একটিতে ফেসবুক লাইভে উসকানিমূলক বক্তব্য প্রচার করে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি এবং ওই প্রার্থীর বাড়িতে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত গরু জবাই করে ভোটারদের আপ্যায়ন করার মাধ্যমে নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা ২০১৬ এর ১৮(ক) ও ১৭(খ) ধারা লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়।

অভিযোগে বলা হয়, একটি ফেসবুক লাইভে ওলিওর ভোটারদের বলেছেন-‘আপনারা ভীত হবেন না,কেউ মারা যান তার দায়িত্ব আমি নেব,আমি ক্ষতিগ্রস্তদের ছেলেমেয়ে ও পরিবার-পরিজনের ভরণ-পোষণের সব দায়িত্ব নেব,আপনারা ভয় পাবেন না’।

অপর অভিযোগে ফিরোজুর রহমান স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েও তার নির্বাচনী পোস্টারে  আওয়ামী লীগের স্লোগান  ‘জয়বাংলা’ ও ‘জয় বঙ্গবন্ধু’ লিখে ভোটারদের বিভ্রান্ত করছেন বলে অভিযোগ আনা হয়।

যাতে নির্বাচনী আচরণবিধি ৮(৫) ধারা লঙ্ঘন হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়। এ ছাড়া নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন স্থানে বাসাবাড়ির দেয়ালে এবং টিনের ঘরের বেড়ায় পোস্টার সাটানোর মাধ্যমে ফিরোজ আচরণ বিধিমালার ৮(৮)ধারা লঙ্ঘন করেছেন বলে অভিযোগ করেন জাহাঙ্গীর আলম।

এসব অভিযোগের সঙ্গে প্রমাণ হিসেবে ফেসবুকে দেয়া ভিডিও লাইভের ৩টি ফুটেজ,বাচ্চাদের মধ্যে টাকা বিলি করার এবং দেয়ালে পোস্টার সাটানোর স্থির ছবি দেয়া হয়।

তবে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কোনো মন্তব্য করেননি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজুর রহমান ওলিও।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন