‘শিক্ষক আপনি কার?’

  বেরোবি প্রতিনিধি ২১ মার্চ ২০১৯, ১৯:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে

‘শিক্ষক আপনি কার? জানিপপের নাকি শিক্ষার্থীর?’ ‘সেশনজটের জটাকলে বিভাগ আমার ক্যামনে চলে’ ‘ভিসিকে সার্বক্ষণিক ক্যাম্পাসে চাই’ ‘বিভাগে পর্যাপ্ত শিক্ষক চাই, সেশনজট থেকে মুক্তি চাই’ স্লোগানে মুখে কালো কাপড় বেঁধে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড নিয়ে নীরব প্রতিবাদ ও মানববন্ধন করেছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ রাসেল চত্বরে লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থীরা এ মানববন্ধনের আয়োজন করেন। এতে ২১ বিভাগের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে সংহতি প্রকাশ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন বিভাগে পর্যাপ্ত শিক্ষক, অনুষদে জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে শিক্ষকদের মধ্য থেকে ডিন নিয়োগ ও বিভাগীয় প্রধান নিয়োগ, সেশনজট নিরসনে বিভাগে নতুন শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী সেলিম হোসেনের সঞ্চালনায় শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, লোকপ্রশাসন বিভাগে মাত্র ৪ জন শিক্ষক মিলে ৭টি ব্যাচকে অধ্যয়ন করাচ্ছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি বিভাগেই শিক্ষক স্বল্পতা এবং ক্লাসরুম সংকট থাকা সত্ত্বেও শিক্ষকরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু ভিসি ক্যাম্পাসে লাগাতার অনুপস্থিতার কারণে শিক্ষকরা পরীক্ষা নিতে চাইলেও ভিসির স্বাক্ষর পেতে দেরি হওয়ায় যথাসময়ে পরীক্ষা হয় না কারণ ভিসি ৬টি অনুষদের মধ্যেই ৪টি অনুষদের ডিন।

প্রতিটি অনুষদে যোগ্য শিক্ষক থাকার পরেও ডিন নিয়োগ না দিয়ে ৪টি ডিনের পদ আগলে রেখেছেন। সমাজবিজ্ঞান বিভাগে সহকারী অধ্যাপক থাকা সত্ত্বেও বিভাগীয় প্রধানের পদ আঁকড়ে রেখেছেন আর এর ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাড়ে ১০ হাজার শিক্ষার্থী।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, লোকপ্রশাসন বিভাগে নতুন দুজন শিক্ষক নিয়োগ হয়েছে। কিন্তু ভিসি তাদের ফাউন্ডেশন ট্রেনিংয়ের নামে জায়গায় জায়গায় নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এর ফলে ব্যাহত হচ্ছে বিভাগের স্বাভাবিক কার্যক্রম। ব্যাচ সংখ্যা বাড়লেও বাড়েনি শিক্ষক। যার কারণে নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষক এবং শিক্ষক নিয়োগের মাধ্যমে বিভাগকে সচল করার আহ্বান জানান শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ভিসি বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে অনেক কথা দিয়েছিলেন। বলেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়কে সেন্টার অব এক্সিলেন্স বানাবেন, লোকপ্রশাসন বিভাগসহ প্রতিটি বিভাগ রোল মডেল বানাবেন কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রহসন করা হয়েছে।

তারা জানান, শিক্ষা জীবনের অনার্স মাস্টার্স ৫ বছরে শেষ হবার কথা থাকলেও ৭ থেকে ৮ বছর সময় লেগে যাচ্ছে। এটা হচ্ছে ভিসির কারণে। তার কারণেই শিক্ষার্থীরা আজ পরিবারসহ সব কিছু থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন বিভাগের শিক্ষার্থী শাহ মোহাম্মদ রতন, সাদিয়া, জেরিন জেমি, জাকারিয়া জাকির, রিপন, মাজেদুল প্রমুখ।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×