প্রশাসনের মদদে ভোট ডাকাতি হয়েছে: ওয়ার্কার্স পার্টি

  বরিশাল ব্যুরো ২৫ মার্চ ২০১৯, ২১:৩৩ | অনলাইন সংস্করণ

প্রশাসনের মদদে ভোট ডাকাতি হয়েছে: ওয়ার্কার্স পার্টি
প্রতীকী ছবি

তৃতীয় ধাপে বরিশাল জেলার বাবুগঞ্জে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া উপজেলা নির্বাচনে প্রশাসনের প্রত্যক্ষ মদদে সরকারি দলের ক্যাডাররা ভোটকেন্দ্র দখল নিয়ে নৌকা প্রতীকে সিল পিটিয়েছে। যার ফলে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনীত হাতুড়ি প্রতীকের প্রার্থীর বিজয় ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে।

সোমবার দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ওয়ার্কার্স পার্টি বরিশাল জেলা কমিটি এই অভিযোগ করেছে।

সন্ত্রাস, কেন্দ্র দখল ও ভোট কারচুপির বিরুদ্ধে এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সাবেক এমপি ও জেলা কমিটির সম্পাদক অ্যাডভোকেট শেখ মো. টিপু সুলতান।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক নজরুল হক নিলু, জেলা কমিটির সদস্য ও বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক টিএম শাহজাহান ও মহানগর কমিটির আহ্বায়ক শান্তি দাস।

লিখিত বক্তব্যে বলেন, 'বাবুগঞ্জ উপজেলায় এক লাখ ১৫ হাজর ১৬২ জন ভোটারের মধ্যে ২০ শতাংশ ভোটার কেন্দ্রে আসেননি। সেখানে কী করে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ৩৮ শতাংশ ভোট পান।'

তারা আরও অভিযোগ করে বলেন, উপজেলার ৫০টি কেন্দ্রের মধ্যে ২০টি কেন্দ্রে পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবির নীরবতা পালনের সুযোগে ও প্রশাসনের প্রত্যক্ষ মদদে সরকারি দলের ক্যাডার বাহিনীর সদস্যরা কেন্দ্র দখল করে ভোট দিয়েছে। আমরা তাৎক্ষণিকভাবে নির্বাচন-সংক্রান্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অভিযোগ দিয়েও তাদের কাছ থেকে কোনো আশানুরূপ সাহায্য-সহযোগিতা পায়নি।

অন্যদিকে নগরীর ৩০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কালাম মোল্লার নেতৃত্বে ক্যাডার বাহিনী ভোটারদের কাছ থেকে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানের ব্যালট পেপার জোর করে ছিনিয়ে নিয়ে তারা ভোট প্রদান করেন কেন্দ্রে নিয়োজিত প্রশাসনের উপস্থিতিতে।

এ ছাড়া নগর আওয়ামী লীগ নেতা মাহমুদুল হক খান মামুন ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা তারিক বিন ইসলামের নেতৃত্বে ১৫-১৬টি মোটরসাইকেল, মাইক্রোবাস নিয়ে মাধবপাশা, চাঁদপাশা ও রহমতপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন কেন্দ্রে গিয়ে ব্যালট পেপার নিয়ে তারা নৌকায় সিল মারে।

এ সময় দায়িত্বরত নির্বাচন কর্মকর্তারা তাদের অবৈধ কাজে সহযোগিতা করেন বলে অভিযোগ করেন জেলা সভাপতি অধ্যাপক নজরুল হক নিলু। এভাবে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কেন্দ্র দখল করে জনগণের ভোটাধিকার হরণ করা হলে জনগণের মধ্যে একেবারে স্থায়ী অনাস্থাবোধ সৃষ্টি করবে, যা গণতন্ত্রের জন্য এক অশনি সংকেত।

ঘটনাপ্রবাহ : উপজেলা নির্বাচন ২০১৯

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×