ছবি তোলায় সাংবাদিককে পেটালেন ছাত্রলীগ নেতা

  শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি ২৬ মার্চ ২০১৯, ১৯:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

শ্রীপুর প্রেস ক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম সোহেল রানা
শ্রীপুর প্রেস ক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম সোহেল রানা

গাজীপুরের শ্রীপুরে নির্বাচন পরবর্তী সহিংস ঘটনায় ৩০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে শ্রীপুরের মাওনা চৌরাস্তা, মুলাইদ, মাওনা, ভাংনাহাটী এলাকায় হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও সহিংসতার ঘটনা ঘটে।

শ্রীপুর থানার এসআই আজহারুল ইসলাম বাদী হয়ে হামলার ঘটনায় দাঙ্গা-হাঙ্গামার অভিযোগে এনে মামলা দায়ের করেছেন।

সহিংসতার ছবি তুলতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন বেসরকারি টেলিভিশন মাই টিভির শ্রীপুর উপজেলা প্রতিনিধি ও শ্রীপুর প্রেস ক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম সোহেল রানা। তিনি মুমূর্ষ অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আহত সাংবাদিক শ্রীপুর পৌরসভার চন্নাপাড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে।

আহত সাংবাদিকের ভাই আমান উল্লাহ ফরাজী জানান, রোববার রাত ১০টার দিকে তার ভাই সাংবাদিক পেশাগত দায়িত্ব পালন শেষে শ্রীপুর থেকে মাওনা চৌরাস্তা নিজ বাসায় আসছিলেন। এ সময় গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল আলম রবিনের শ্রীপুর রোডের (মাওনা চৌরাস্তা সংলগ্ন) বাসভবনে ১০ থেকে ১৫টি মোটরসাইকেলে ২৫-৩০ জনের একদল যুবক লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করে।

তিনি বলেন, এ ঘটনার ছবি সাংবাদিক সোহেল তার হাতে থাকা মোবাইলে ধারণ করতে চাইলে গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক ফাহিম খন্দকার তার হাত থেকে ফোন কেড়ে নেন। এ সময় তার সঙ্গে থাকা অন্যান্য সহকর্মীরা সাংবাদিককে কিল-ঘুষি মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। এক পর্যায়ে হামলাকারীরা সাংবাদিক সোহেলকে ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে। পরে জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তারা সোহেলের মোবাইল ফোন নিয়ে চলে যায়।

আমান উল্লাহ ফরাজী জানান, খবর পেয়ে সাংবাদিক সহকর্মী ও তার স্বজনেরা তাকে উদ্ধার করে মাওনার একটি হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই রাতেই শ্রীপুরের গণমাধ্যম কর্মীদের সহায়তায় স্বজনেরা তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

তিনি আরও জানান, সাংবাদিক সোহেলের মাথায় তিনটি সেলাই দেয়া হয়েছে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। খবর পেয়ে গাজীপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) শামসুন্নাহার আহত সাংবাদিককে দেখতে আসে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের যত দ্রুত সম্ভব গ্রেফতারের আশ্বাস দেয়।

গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল আলম রবিন বলেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের পক্ষে প্রচারণা করায় রোববার রাত পৌনে ১০টার দিকে গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক ফাহিম খন্দকারের নেতৃত্বে কমপক্ষে ২০-২৫টি মোটরসাইকেল যোগে ৪০-৫০ জন যুবক তার বাড়িতে হামলা করে। যুবকেরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও তার বাড়ির গেট ভাঙ্গার চেষ্টা করে।

এদিকে শ্রীপুরে কর্মরত শ্রীপুর রিপোর্টার্স ইউনিটি, শ্রীপুর উপজেলা সাংবাদিক সমিতি, শ্রীপুর অনলাইন প্রেসক্লাব ও শ্রীপুর প্রেসক্লাবের গণমাধ্যাম কর্মীরা পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

তারা বলেন, সাংবাদিকের ওপর হামলা স্বাধীন সাংবাদিকতার কন্ঠরোধের শামিল। হামলার ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×