টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নারীসহ নিহত ৩

  টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি ৩১ মার্চ ২০১৯, ১০:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নারীসহ নিহত ৩
ছবি: যুগান্তর

কক্সবাজারের টেকনাফে মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নারীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন।

পুলিশের দাবি, নিহতরা ইয়াবা ব্যবসায়ী। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। নিহতরা হলেন- উপজেলার হ্নীলা আলী আকবরপাড়ার মিয়া হোসেনের ছেলে মাহমুদুর রহমান (২৮) ও পশ্চিম সিকদারপাড়া মইন্যাজুমের নুরুল ইসলামের ছেলে মোহাম্মদ আবছার (২৫) এবং রোহিঙ্গা নারী মিয়ানমারের আকিয়াব জেলার মণ্ডু থানার রাইম্যাবিলের বদরুল ইসলামের স্ত্রী রুমানা আক্তার।

রোববার ভোররাতে টেকনাফের দমদমিয়া ও হোয়াইক্যং এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, শনিবার রাতে উপজেলার মৌলভীবাজার ব্রিজসংলগ্ন এলাকায় ইয়াবাকারবারি দুগ্রুপের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যায়।

এ সময় মাদককারবারিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলিবর্ষণ করলে উভয়পক্ষের মধ্যে অর্ধশতাধিক রাউন্ড গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশের এসআই দীপক, এএসআই আমির ও কনস্টেবল শরীফুল আহত হন।

অন্য মাদককারবারিরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ছয়টি দেশীয় তৈরি অস্ত্র, ১০ হাজার পিস ইয়াবা এবং ১৮টি তাজা কার্তুজসহ রক্তাক্ত ও গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করা হয়।

চিকিৎসার জন্য তাদের টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার নেয়ার পথে তারা মারা যায়।

পরে নিহতদের পরিচয় শনাক্ত করা হয়। নিহতরা মাদকসহ একাধিক মামলার পলাতক আসামি ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। মৃতদেহ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্তসাপেক্ষে পৃথক মামলার প্রস্তুতি চলছে।

অন্যদিকে টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দার জানান, টেকনাফের নাফ নদে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রুমানা আক্তার (২০) নামে এক রোহিঙ্গা নারী নিহত হয়েছেন।

রোববার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে নাফ নদের ওমরখাল পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে।

তিনি বলেন, বিজিবি-২ ব্যাটালিয়নের দমদমিয়া বিওপি ক্যাম্পের জওয়ানরা নাফ নদে টহল দেয়ার সময় ওমরখাল পয়েন্ট দিয়ে নৌকায় একদল রোহিঙ্গা ইয়াবার চালান নিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে। এ সময় বিজিবি জওয়ানরা চ্যালেঞ্জ করলে বিজিবির ওপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করে এবং ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। এ সময় এক বিজিবি সদস্য আহত হন।

বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে গুলিবর্ষণ করে। চোরাকারবারিরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ এক রোহিঙ্গা নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করে। নিহত নারীর ভ্যানিটি ব্যাগ ও ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ১০ হাজার পিস ইয়াবা এবং দুটি কিরিচ উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত নারী রুমানা আক্তার বর্তমানে লেদা অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা বস্তির ব্লক নং-সি/৬-এর ৪০নং রোমে বসবাস করে আসছে বলে নিশ্চিত করেন বিজিবি। মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×