মানুষের দয়া হলেও হয়নি জনপ্রতিনিধিদের!

  ভেড়মারা (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি ০১ এপ্রিল ২০১৯, ২২:২৪ | অনলাইন সংস্করণ

বয়স্ক ভাতার কার্ড জোটেনি হতদরিদ্র ৯২ বছরের দোলত আলীর
বয়স্ক ভাতার কার্ড জোটেনি হতদরিদ্র ৯২ বছরের দোলত আলীর

প্রায় ৯২ বছর বয়স হলেও বয়স্ক ভাতার কার্ড জোটেনি হতদরিদ্র মো. দোলত আলীর কপালে। তাকে দেখে সাধারণ মানুষের দয়া হলেও দয়া হয়নি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের।

মো. দোলত আলী কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার চিথলিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মজলিশপুর গ্রামের মৃত ইমান আলীর ছেলে। জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী তার জন্ম ১৯২৭ সালের ২৭ অক্টোবর, বর্তমানে তার বয়স প্রায় ৯২ বছর।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বাস্তবে তার বয়স আরও বেশি হবে।

এই বৃদ্ধ আক্ষেপ করে বলেন, এখন আমি অসুস্থ, চলতে পারি না। যদি একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড দেয়া হয়, তাহলে যত দিন বেঁচে থাকব, কোনোমতে চলতে পারব। বয়সের ভারে নুইয়ে পড়ে লাঠি ভর দিয়ে বেঁচে থাকার সংগ্রামে ছুটে চলেছেন মানুষের দ্বারে দ্বারে কিছুটা আর্থিক সাহায্যের জন্য।

বয়স্ক ভাতার কার্ড পেয়েছেন কিনা জানতে চাইলে, দোলত আলী উল্টো প্রশ্ন করে বলেন, কবে পাব বয়স্ক ভাতার কার্ড?

স্থানীয় ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার কাফের আলী জানান, তিনি খুব শিগগিরই দোলত আলীকে বয়স্ক ভাতার কার্ড করে দেবেন।

এ ব্যাপারে মিরপুর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা সোহেল রানা বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ থেকে যে তালিকা পাঠানো হয় তার ভিত্তিতেই আমরা কার্ড সরবরাহ করে থাকি। এর বাইরেও বয়স্ক ভাতা কার্ড পাওয়ার যোগ্য কেউ থাকে তাহলে আমি ব্যবস্থা করে দেব।

চিথলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন পিস্তল জানান, বিষয়টি তার জানা ছিল না, আমি খোঁজখবর নিচ্ছি। তবে সত্যতা পেলে অবশ্যই বয়স্ক ভাতার কার্ডের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×