নির্বাচনী সহিংসতা

আমতলীতে দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৬

  আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি ০২ এপ্রিল ২০১৯, ১০:১৫ | অনলাইন সংস্করণ

আমতলীতে দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৬
ছবি: যুগান্তর

বরগুনার আমতলীতে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতায় দুপক্ষের সংঘর্ষে ১৬ জন আহত হয়েছেন। আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার রাতে উপজেলার আড়পাঙ্গাশিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আমতলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন কেন্দ্র করে শুক্রবার শামসুদ্দিন আহমেদ সজুর সমর্থক আড়পাঙ্গাশিয়া ইউপি চেয়ারম্যান একেএম নুরুল হক তালুকদার ও গোলাম সরোয়ার ফোরকানের সমর্থক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সহসভাপতি মতিউর রহমানের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়।

এ সময় চেয়ারম্যান নুরুল হক তালুকদারের ফুফাতো ভাই মোটরসাইকেলচালক দেলোয়ার হোসেন লাঠি নিয়ে গোলাম সরোয়ার ফোরকানের লোকজনকে ধাওয়া করে। সোমবার সন্ধ্যা রাতে গোলাম সরোয়ার ফোরকানের সমর্থক কাওসার আহম্মেদ পপিন দেলোয়ারকে লাঠি নিয়ে গোলাম সরোয়ার ফোরকানের লোকজনকে ধাওয়া করার বিষয়টি জানতে চায়।

এ নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায় পপিন মোটরসাইকেলচালক দেলোয়ারকে একটি থাপ্পড় মারে। এ বিষয়টি স্থানীয় লোকজন মীমাংসা করে দেয়। কিন্তু মোটরসাইকেলচালক দেলোয়ার এসে সন্তুষ্ট না হয়ে পরাজিত প্রার্থী শামসুদ্দিন আহমেদ সজুর সমর্থক আবুল বাশার মানিককে (কালামানিক) জানায়।

বিষয়টি নিয়ে মানিক ও পপিনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায় পপিন ও তার লোকজন মানিককে মারধর করে।

খবর পেয়ে মানিকের ২০-২৫ জনের একটি বাহিনী ধারালো অস্ত্র দিয়ে পপিন ও তার লোকজনকে ধাওয়া করে। ঘণ্টাব্যাপী ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া চলে। মানিক বাহিনীর তাণ্ডবে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। মুহূর্তের মধ্যে দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়।

এতে উভয়পক্ষে ১৬ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত রিয়াজ (২৭), মজিবুর (৩৫), পপিন (৩৫), পলাশ (৩০), হুমায়ূন (৪০), কালামানিক (৪৫) নিজাম (৫০), আবুবকর (৪০), হাসিব (২৫) ও কামাল মৃধাকে (৪৫) বরিশাল শেরেবাংলা ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খরর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, মানিক বাহিনী ও পপিনের লোকজনের মধ্যে কয়েক দফায় সংঘর্ষ হয়। দুপক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

মুহূর্তের মধ্যে দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। এতে উভয়পক্ষের বেশ কয়েকজন লোক আহত হয়েছেন।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, পাঁচজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) মো. নুরুল ইসলাম বাদল বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। এ ঘটনায় সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতজনকে থানা আনা হয়েছে।

আরও পড়ুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×