‘পুলিশ অফিসারের আচরণে মনে হলো থানাতেই আত্মহত্যা করি!’

  জামালপুর প্রতিনিধি ০৪ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৫২ | অনলাইন সংস্করণ

প্রতিবাদসভা সভায় জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আজিজুর রহমান ডল
প্রতিবাদসভা সভায় জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আজিজুর রহমান ডল

একজন সাংবাদিকের মাতৃহারা শিশুকন্যা নিয়ে পুলিশ কর্মকর্তার আপত্তিকর মন্তব্যে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে জামালপুরে কর্মরত সাংবাদিকরা।

জামালপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এটিএন বাংলা ও এটিএন নিউজের জামালপুর প্রতিনিধি লুৎফর রহমানের সম্প্রতি স্ত্রী বিয়োগ ঘটে। লুৎফর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিন উত্তর আমেরিকা সংস্করণের নির্বাহী সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসারের ছোট ভাই।

লুৎফর রহমান বাসায় দুটি শিশুসন্তান রেখে পেশাগত কাজে বাইরে বের হলে ৪টি অপরিচিত নম্বর থেকে বাসার মোবাইল ফোনে প্রায়ই বিরক্ত করা হয়। বুধবার রাত ৮টার দিকে লুৎফর রহমান কয়েকজন সহকর্মী নিয়ে জামালপুর থানার ওসিকে বিষয়টি জানাতে যান।

ওসি আন্তরিকভাবে অভিযোগটি শুনলেও ওসির চেয়ারে বসা ইসলামপুর সার্কেলের এএসপি আবু সুফিয়ান সাংবাদিকের শিশুকন্যা নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন।

এ ঘটনায় হতভম্ব লুৎফর রহমান সহকর্মীদের নিয়ে থানা থেকে চলে এসে ফেসবুকে ‘পুলিশ অফিসারের আচরণে মনে হলো থানাতেই আত্মহত্যা করি!’ শিরোনামে একটি হৃদয়স্পর্শী স্ট্যাটাস দেন।

মুহূর্তেই এটি জেলাজুড়ে ভাইরাল হয়ে যায়। সব মহল থেকে ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জামালপুর প্রেসক্লাবে প্রতিবাদসভা থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই পুলিশ কর্মকর্তার অপসারণ দাবি করেন সাংবাদিকরা। অন্যথায় তারা পুলিশের সব সংবাদ বর্জনের সিদ্ধান্ত নেন।

জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আজিজুর রহমান ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদসভায় বক্তব্য রাখেন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দুলাল হোসাইন, সাবেক সভাপতি হাফিজ রায়হান সাদা, প্রেসক্লাবের সহসভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, দৈনিক সংবাদের প্রতিনিধি সুশান্ত কানু, পল্লীকণ্ঠ প্রতিদিন সম্পাদক নুরুল হক জঙ্গী, বাংলাভিশনের সাংবাদিক জাহিদ হাবিব, কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি মোস্তফা মনজু, সমকাল ও চ্যানেল টোয়েন্টিফোর সাংবাদিক আনোয়ার হোসেন মিন্টু, প্রথম আলো সংবাদিক আজিজুর রহমান, সংবাদ প্রতিদিনের সাংবাদিক আনোয়ার হোসেন, বাংলাদেশের খবরের সাংবাদিক সৈয়দ শওকত জামানসহ সিনিয়র সাংবাদিকরা।

সভায় জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আজিজুর রহমান ডল জানান, ঘটনা শোনার পরপরই পুলিশ সুপারকে জানানো হয়। কিন্তু তিনি কোনো পদক্ষেপ নেননি।

এদিকে অভিযুক্ত এএসপি আবু সুফিয়ানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি শুধু একটি লাইন বলেছি, কোনো আপত্তিকর মন্তব্য করিনি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×