দাবি না মানলে মঙ্গলবার থেকে জাহাজ শ্রমিকদের কর্মবিরতি

  মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ০৪:১৫ | অনলাইন সংস্করণ

লাইটারেজ শ্রমিকদের বিক্ষোভ মিছিল
লাইটারেজ শ্রমিকদের বিক্ষোভ মিছিল

ভারতগামী জাহাজের নাবিকদের ল্যান্ডিং পাস নিশ্চিত এবং অভ্যন্তরীণ নৌপথে চাঁদাবাজি বন্ধ করাসহ ১৪ দফা দাবিতে আবারও আন্দোলনের ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়নসহ জাহাজী শ্রমিক ফেডারেশন।

২৪ ঘন্টার মধ্যে দাবি বাস্তবায়ন না হলে মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে দেশব্যাপী লাগাতর কর্মবিরতির পালনের হুঁশিয়ারী দিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

রোববার বিকালে বাগেরহাটের মোংলায় বাংলাদেশ লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যলয় আয়োজিত এক শ্রমিক সমাবেশে এ ঘোষনা দেয়া হয়।

বাংলাদেশ জাহাজী শ্রমিক ফেডারেশনের অন্তভূক্ত ১০টি সংগঠন একই দাবিতে যৌথ এ কর্মসূচি ঘোষণা দেয়।

লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়নের মোংলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফিরোজ মাস্টারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন লাইটার শ্রমিক ইউনিয়নের মোংলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. মামুন হাওলাদার বাদশা, মাস্টার শামিম, বেল্লাল হোসেন, কাইয়ুম, ড্রাইভার রুবেল, কুদ্দুছ, জিয়া ও মাসুদ মাস্টার প্রমুখ।

এ সমাবেশে শ্রমিক নেতারা অভিযোগ করেন, তাদের শ্রমিক মজুরি তুলনামূলক অনেক কম, দ্রব্যমুল্যের ঊর্ধ্বগতি থাকা সত্ত্বেও মালিকপক্ষ তাদের মাসিক খোরাকী দিচ্ছে না। এ ছাড়া শ্রম মজুরিবিধি অনুযায়ী মধ্যবর্তী ভাতা প্রদান না করায় শ্রমিক পরিবারগুলো চিকিৎসা, শিক্ষা ও বাসস্থানসহ অর্থনৈতিকভাবে চরম মানবেতর দিন কাটাচ্ছে। একই সঙ্গে ভারতগামীসহ উপকূলীয় অঞ্চলের ঝুঁকিপূর্ন নৌপথে চলাচলকারী লাইটার শ্রমিকদের মাসিক বেতন ৫০ ভাগ বৃদ্ধির দাবি তোলেন শ্রমিক নেতারা।

তারা আরও অভিযোগ করেন, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌপরিবহন অধিদফতরের পরীক্ষা সংক্রান্ত জটিলতা রয়েছে দীর্ঘদিনের। তাই চট্রগ্রাম ও মোংলা সমুদ্র বন্দর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগে লাইটারেজ মাস্টার, ড্রাইভারদের পরীক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।

সমাবেশে কর্মরত শ্রমিকের মৃত্যুকালীন সরকারি অনুদান ৫ লাখ টাকা নির্ধারণসহ ১৪ দফা উপস্থাপন করেন শ্রমিক নেতারা। পরে লাইটারেজ শ্রমিকদের একটি বিক্ষোভ মিছিল শহর প্রদক্ষিণ শেষে সংগঠনের সামনে মামার ঘাট এলাকায় গিয়ে শেষ হয়।

প্রস্তাবিত দাবি প্রসঙ্গে বাংলাদেশ লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাদাৎ হোসেন জানান, সোমবারের মধ্যে সরকার ও মালিকপক্ষ প্রস্তাবিত দাবিসমুহ বাস্তবায়ন ও সুরাহ না করলে শ্রমিকরা কর্মরিরতি পালনসহ কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি গ্রহণে বাধ্য হবেন।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×