হালদায় ভেসে উঠল মরা ডলফিন

  হাটহাজারী প্রতিনিধি ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৫৩ | অনলাইন সংস্করণ

হালদায় ভেসে উঠল মরা ডলফিন
ছবি: যুগান্তর

দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র মিঠাপানির প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদায় ভেসে উঠেছে মরা ডলফিন। হালদায় একের পর এক বেড়েই চলেছে মৃত ডলফিনের সংখ্যা।

কার্পজাতীয় (রুই, কাতাল, মৃগেল ও কালবাউশ) মা-মাছ ডিম ছাড়া মৌসুমে এ ধরনের জীববৈচিত্র্য মারা যাওয়া নিয়ে উদ্বেগের কথা জানিয়েছেন হালদা নদীর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞমহল।

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নিষিদ্ধ নদীতে যান্ত্রিক যানের (ইঞ্জিনচালিত নৌকা ও ড্রেজার) ডুবন্ত ঘূর্ণায়মান পাখার আঘাতে মিঠাপানির বিশ্বের অতিবিপন্ন স্তন্যপায়ী প্রাণী ডলফিন ও নদীতে থাকা নানা প্রকার জীববৈচিত্র্যেরও অকাল মৃত্যু হচ্ছে।

বিশ্বের একমাত্র জোয়ার ভাটার এ নদীতে যখন পানির স্তর কমে তখন চলাচল করা যান্ত্রিক যানের ডুবন্ত ঘূর্ণায়মান পাখার আঘাতে বিভিন্ন প্রজাতির জীববৈচিত্র্যের অকাল মৃত্যু হচ্ছে।

যা জীববৈচিত্র্যের জন্য হুমকি এবং আমাদের কাছে বেশ উদ্বেগের বিষয় বলে জানান হালদা গবেষক ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরিয়া।

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হালদা নদীর মদুনাঘাট এলাকায় একটি মৃত শুশুকের বাচ্চা মরে ভেসে ওঠে। ওই মৃত ডলফিনের বাচ্চাটি নদীতে ভাসতে দেখে স্থানীয় জনতা আমাকে অবহিত করে।

মৃত ডলফিনের বাচ্চাটি ইঞ্জিনচালিত নৌকা ও ড্রেজারের ডুবন্ত ঘূর্ণায়মান পাখার আঘাতে মরে ভেসে উঠেছে। প্রায় দেড় ফুট দৈর্ঘ্য ওই ডলফিনের বাচ্চাটির দেহের মাঝ বরাবর প্রায় দ্বিখণ্ডিত ছিল।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×