কালবৈশাখীতে ছাতক লণ্ডভণ্ড, ৫ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

  ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ২০:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

কালবৈশাখী ঝড়ে ছাতকে ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত
কালবৈশাখী ঝড়ে ছাতকে ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

কালবৈশাখী ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলা। উপজেলায় ৫ হাজার কাঁচা ঘরবাড়ি, বিদ্যুৎ লাইন লণ্ডভণ্ড, বোরো ফসল ও হাজার হাজার গাছ গাছালির ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার ওপর দিয়ে এ কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যায়। উপজেলার হাজার হাজার গাছপাল উপচে পড়েছে। ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হয়েছে শতাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও পাকা-আধাপাকা বোরো ফসলের।

ঝড়ের কারণে সদরের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকার পর তাজপুর এলাকাবাসী ও পুলিশের সহযোগিতায় সড়কের ওপর থেকে গাছ সরিয়ে পুনরায় যোগাযোগ চালু করা হয়। নোয়ারাই শিল্প এলাকায় চুনা পাজর কারখানার ঘরের চালে টিন উড়ে যাওয়ার ফলে ৫ হাজার মণ বস্তাভর্তি চুন নষ্ট হয়ে গেছে।

ওই প্রতিষ্ঠানের মালিক আবদুল মমিন চৌধুরী জানান, তার প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

মঙ্গলবার গভীর রাতে এক ঘণ্টাব্যাপী কালবৈশাখী ঝড় আঘাত হানে উপজেলার, উত্তর খুরমা, চরমহলা, ছাতক সদর, কালারুকা ইসলামপুর, দক্ষিণ খুরমা, নোয়ারাই, দোলারবাজার, সিংচাপইড়, ভাত গাঁও, গোবিন্দগঞ্জ সৈয়দগাঁও, জাউয়াবাজারসহ ১৪টি ইউনিয়নের শতাধিক গ্রামে। উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে বিদ্যুতের শতাধিক খুঁটি ভেঙে পড়েছে।।

স্থানীয় নিয়ামত আলী ও সায়েদ মিয়া জানান, ছাতক, খুরমা উত্তর, গোবিন্দগঞ্জ পয়েন্টসহ গ্রাম ঝড়ের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। শতাধিক গ্রামের কাঁচা ঘরবাড়ি ও পাছপালার ও বোরো ফসলে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

৪৭নং আলমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভবনে চালে টিন ও বিশাল একটি গাছ উপচে পড়েছে ভবনে ওপর। যে কোনো সময় ভয়াবহ দুর্ঘটনার আশঙ্কা বিরাজ করছে। এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন প্রধান শিক্ষক মাওলানা সামছুল ইসলাম।

এ দিকে বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগে সহকারী প্রকৌশলী আলাউদ্দিন জানান, বুধবার বৈশাখী ঝড়ে ছাতক উপজেলাজুড়ে ১২টি ফিল্টার সাময়িকভাবে বন্ধ রয়েছে। ৫ ঘণ্টার মধ্যে দুটি ফিল্টার চালু করা হয়। বন্ধ রয়েছে ১০টি।

তিনি জানান, শতাধিক স্থানে পাছপালা পড়ে বিদ্যুতের খুঁটি লাইন ছিঁড়ে পড়েছে। এতে বিদ্যুৎ চালু করতে শ্রমিকরা আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। ঝড়ে ভেঙে পড়া খুঁটি মেরামতে কাজ চলছে।

এ ব্যাপারে ছাতক থানার ওসি আতিকুর রহমান জানান, ঝড়ের কারণে গোবিন্দগঞ্জ ছাতক সড়কে ওপর উপচেপড়া গাছের কারণে সকালে কিছু সময় যোগাযোগ বন্ধ থাকার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে সড়কে ওপর থেকে গাছটি সরিয়ে দেয়া হয়। পরে পুনরায় সড়ক যোগাযোগ চালু হয়। কিন্তু হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি এখন পর্যন্ত।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×