উলিপুরে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চত্বরে সাঈদীর ওয়াজ!

  উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি ২০ এপ্রিল ২০১৯, ২২:৫৭ | অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রাম

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড কার্যালয় চত্বরে উপজেলা প্রেসক্লাব নামের একটি সংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আনন্দ র‌্যালি উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান।

উদ্বোধন করে তারা চলে যাওয়ার পরেই ওই অনুষ্ঠানে শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী দণ্ডপ্রাপ্ত দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীর ওয়াজ বাজানো হয়। এ সময় ক্ষুব্ধ জনতার তোপের মুখে পড়েন অনুষ্ঠানের আয়োজকরা। এ ঘটনায় উপজেলার মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার বিকালে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড কার্যালয় চত্বরে। এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মাইকসহ এক ব্যক্তিকে আটক করে।

জানা গেছে, উপজেলা প্রেসক্লাব নামের একটি সংগঠন তাদের দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চত্বরে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে। কর্মসূচির অংশ হিসেবে আনন্দ র‌্যালি শুরুর প্রাক্কালে কুড়িগ্রাম-৩ আসনের ক্ষমতাসীন দলের সংসদ সদস্য অধ্যাপক এম এ মতিন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন মন্টু র‌্যালির উদ্বোধন করে চলে যাওয়ার পর পরই ওই স্থানে জামায়াত নেতা শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী দণ্ডপ্রাপ্ত দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীর ওয়াজ মাইকে বাজানো হয়।

এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধারা ক্ষুব্ধ হয়ে থানা পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পরে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মাইকসহ অপারেটর নুরুজ্জামানকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

উপজেলা প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক মিজানুর রহমান লিটন বলেন, ওখানে সাঈদীর ওয়াজ কীভাবে কারা বাজালো আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। আমরা সাবেক কমান্ডার ফয়জার রহমানের কাছ থেকে অফিস ব্যবহারের অনুমতি নিয়েছি।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদসের সাবেক সহকারী কমান্ডার রবিউস সামাদ জানান, তিনি কার্যালয়ে গিয়ে সাঈদীর ওয়াজ বাজানোর সত্যতা পান এবং বিষয়টি থানা পুলিশকে খবর দেন।

উলিপুর থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, অভিযোগ পেয়ে মাইক জব্দ ও মাইক অপারেটরকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ উলিপুর কমান্ডের প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল কাদের জানান, ওই সংগঠনটি অফিস ব্যবহারের অনুমতি নেয়নি। তাদের বিরুদ্ধে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা নিচ্ছি।

এ বিষয়ে সংসদ সদস্য অধ্যাপক এমএ মতিন জানান, র‌্যালি উদ্বোধন করে আমি চলে এসেছি। এরপর কী ঘটেছে তা আমি জানি না।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×