সেহরি খাওয়ার জন্য উঠায় বেঁচে গেলেন রিজিয়া বেগম!

প্রকাশ : ২২ এপ্রিল ২০১৯, ০২:২৮ | অনলাইন সংস্করণ

  মুলাদী (বরিশাল) প্রতিনিধি

আগুনে দগ্ধ নিরীহ গরুর শরীর ও খড়ের গাঁদা। ছবি: যুগান্তর

বরিশালের মুলাদীতে পূর্বশত্রুতার জের ধরে এক প্রবাসীর মাকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।  শনিবার গভীর রাতে উপজেলার সফিপুর ইউনিয়নের ব্রজমোহন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ওই এলাকার মৃত জয়নাল সরদারের পুত্র মো মফসের সরদারের নেতৃত্বে ১২/১৩জন দুস্কৃতকারী ওই এলাকার প্রবাসী আলমগীর সিকদারের মা রিজিয়া বেগমকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। এসময় আলমগীর সিকদারের ২টি গরু, গোয়াল ঘর, দুটি খড়ের গাঁদা পুড়ে যায়।

প্রবাসী আলমগীর সিকদারের স্ত্রী কনা বেগম জানান, বাড়ির জায়গা জমি নিয়ে তাদের সাথে পার্শ্ববর্তী বাড়ির মফসের সিকদারের বিরোধ চলে আসছিলো।

জমি নিয়ে মফসের সরদার আদালতে মামলা দায়ের করে ব্যর্থ হয়ে কনা বেগম ও তার পরিবারকে বিভিন্ন হুমকি দিতে থাকে। মফসের সরদারের হুমকিতে কনা বেগম তার ছেলে নিয়ে চরসাহেবরামপুর এলাকায় বসবাস করেন।

ওই দিন দিবাগত রাত ৩টার দিকে মফসের সরদার লোকজন নিয়ে আলমগীর সিকদারের বসতঘর সংলগ্ন গোয়ালঘর ও খড়ের গাঁদায় অগ্নিসংযোগ করে। ওই সময় আলমগীর সিকদারের মা রিজিয়া বেগম সেহরী খাওয়ার জন্য ঘুম থেকে জেগে ওঠেন। পরে অজু করার উদ্দেশ্যে বাইরে বের হলে আগুন দেখে ডাকচিৎকার শুরু করে।

এসময় তিনি মফসের সরদার ও তার লোকজনদের দৌড়ে পালিয়ে যেতে দেখতে পান বলে দাবি করেন।

পরে স্থানীয়রা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে পারলেও আলমগীর সিকদারের গোয়াল ঘর, ২টি গরু, ২টি খড়ের গাঁদা ও লাকরীর ঘর পুড়ে যায়। এঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী কনা বেগম বাদী হয়ে রোববার দুপুরে মফসের সরদার, তার পুত্র সেন্টু সরদার, ভাই হান্নান সরদার, আলাউদ্দীন সরদার, ভাইপো ইলিয়াস সরদার, শাওন সরদারসহ ১৩জনের বিরুদ্ধে মুলাদী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে মুলাদী থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়াউল আহসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান মামলার তদন্ত এবং আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।