লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রেজ্জাকুল হত্যা মামলার আসামি গুলিবিদ্ধ
jugantor
লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রেজ্জাকুল হত্যা মামলার আসামি গুলিবিদ্ধ

  লালমনিরহাট প্রতিনিধি  

২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১২:১৩:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রেজ্জাকুল হত্যা মামলার আসামি গুলিবিদ্ধ

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আলমগীর হোসেন (৩২) নামে এক যুবক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

পুলিশের দাবি, গুলিবিদ্ধ আলমগীর হোসেন রেজ্জাকুল হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন আসামি ও মাদক বিক্রেতা। তিনি আটটি মাদক, একটি হত্যাসহ ১০ মামলার আসামি।

বুধবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের স্বর্ণামতি সেতুর পশ্চিম পাড়ে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

গুলিবিদ্ধ আলমগীর হোসেন উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের দীঘলটারী ডিক্রিরচর গ্রামের মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে।

আদিতমারী থানা ওসি (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের মান্নানের চৌপতি এলাকার রেজ্জাকুল হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন আসামি ও মাদক বিক্রেতা আলমগীর হোসেনকে আটক করা হয়।

পরে আলমগীর হোসেনের দেয়া তথ্যমতে, তাকে সঙ্গে নিয়ে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের স্বর্ণামতি সেতুর পশ্চিম পাড়ে অভিযানে যায় পুলিশ।

এ সময় তার সহযোগীরা তাদের ওপর হামলা চালিয়ে আলমগীরকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় পুলিশ চার রাউন্ড শটগানের গুলি ছুড়লে আলমগীরের দুই পায়ে লাগে। পরে তাকে উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ সময় মাদক বিক্রেতাদের হামলায় আদিতমারী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মিজানুর রহমান ও কনস্টেবল নাজিরুল ইসলাম আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

মাদক বিক্রেতা আলমগীর হোসেন আটটি মাদক, একটি হত্যাসহ ১০ মামলার আসামি। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় আরও একটি মামলা করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রেজ্জাকুল হত্যা মামলার আসামি গুলিবিদ্ধ

 লালমনিরহাট প্রতিনিধি 
২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১২:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লালমনিরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রেজ্জাকুল হত্যা মামলার আসামি গুলিবিদ্ধ
ছবি: যুগান্তর

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আলমগীর হোসেন (৩২) নামে এক যুবক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। 

পুলিশের দাবি, গুলিবিদ্ধ আলমগীর হোসেন রেজ্জাকুল হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন আসামি ও মাদক বিক্রেতা। তিনি আটটি মাদক, একটি হত্যাসহ ১০ মামলার আসামি। 

বুধবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের স্বর্ণামতি সেতুর পশ্চিম পাড়ে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

গুলিবিদ্ধ আলমগীর হোসেন উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের দীঘলটারী ডিক্রিরচর গ্রামের মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে। 

আদিতমারী থানা ওসি (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের মান্নানের চৌপতি এলাকার রেজ্জাকুল হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন আসামি ও মাদক বিক্রেতা আলমগীর হোসেনকে আটক করা হয়। 

পরে আলমগীর হোসেনের দেয়া তথ্যমতে, তাকে সঙ্গে নিয়ে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের স্বর্ণামতি সেতুর পশ্চিম পাড়ে অভিযানে যায় পুলিশ।

এ সময় তার সহযোগীরা তাদের ওপর হামলা চালিয়ে আলমগীরকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। 

এ সময় পুলিশ চার রাউন্ড শটগানের গুলি ছুড়লে আলমগীরের দুই পায়ে লাগে। পরে তাকে উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ সময় মাদক বিক্রেতাদের হামলায় আদিতমারী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মিজানুর রহমান ও কনস্টেবল নাজিরুল ইসলাম আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

মাদক বিক্রেতা আলমগীর হোসেন আটটি মাদক, একটি হত্যাসহ ১০ মামলার আসামি। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় আরও একটি মামলা  করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন