বেনাপোলে মিথ্যা ঘোষণায় আনা অবৈধ পণ্যের চালান জব্দ

  বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ২১:০৪ | অনলাইন সংস্করণ

বেনাপোল স্থলবন্দর
বেনাপোল স্থলবন্দর

যশোরের বেনাপোল বন্দর দিয়ে মিথ্যা ঘোষণায় নো এন্ট্রির মাধ্যমে ভারত থেকে আমদানি করা কাভার্ডভ্যানবোঝাই আমদানি নিষিদ্ধ ইনজেকশন সিরিঞ্জ, শাড়ি, থ্রিপিসসহ অন্যান্য পণ্যের একটি চালান জব্দ করেছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

বুধবার রাতে একটি ফ্লেভারের চালানের মধ্যে লুকিয়ে এসব পণ্য কাভার্ডভ্যানে নিয়ে যাওয়ার সময় কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরীর নির্দেশে চালানটি আটক করা হয়।

বেনাপোল কাস্টমসের আনস্ট্যাবল টিমের ডেপুটি কমিশনার জাকির হোসেন জানান, গোপন সংবাদ পেয়ে আনস্ট্যাবল টিমের এআরও রাশেদুর রহমান বন্দরের ১২ নম্বর শেড থেকে কাভার্ডভ্যানে লোড করা চালানটি আটক করে কমিশনার বেলাল হোসাইন চৌধুরীকে খবর দেন। পরে ডেপুটি কমিশনার জাকির হোসেন গিয়ে ট্রাকসহ পণ্য চালানটি আটক করে কাস্টমস কম্পাউন্ডে নিয়ে আসে। এ সময় জব্দ করা হয়েছে পণ্যবোঝাই ট্রাকসহ সব কাগজপত্র।

কাস্টমস কর্তৃপক্ষ জানায়, বেনাপোল বন্দর থেকে জব্দকৃত চালানটির পণ্য পরীক্ষা হয়েছে বেনাপোল কাস্টম হাউসে কম্পাউন্ডে। পণ্য চালানটির প্যাকিং লিস্টে আমদানি করা হয় ২৫ কার্টনে মাত্র ৫০০ কেজি ফুড ফ্লেভার। কিন্তু পণ্য চালানটি জব্দ করার পর ওই ট্রাক থেকে আমদানি নিষিদ্ধ ১ লাখ ৭৫ হাজার পিস ইনজেকশন সিরিঞ্জ ও ২০০ কেজি কেমিক্যাল, বিপুল পরিমাণ রেডিমেট গার্মেন্টসসহ শাড়ি, থ্রিপিস পাওয়া যায়। যা থেকে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দেয়া হচ্ছিল ২৪ লাখ টাকা। তবে পণ্য চালানটিতে আমদানিকৃত পণ্যের ঘোষণায় ছিল ফুড ফ্লেভার।

বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী জানান, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে নো এন্ট্রির একটি চালান আটক করা হয়েছে। আমদানিকারক ও সংশিষ্ট সিএন্ডএফ এজেন্টর বিরুদ্ধে থানায় মামলাসহ লাইসেন্স বাতিল করার প্রক্রিয়া চলছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×