ঝিনাইদহে পরিদর্শকসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

  ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২১:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলার কচুয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইন্সপেক্টর (পরিদর্শক) ইলিয়াস হোসেন মোল্লাসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে নালিশি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার শৈলকূপা উপজেলা আমলি আদালতের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আশরাফুজ্জামানের আদালতে মামলাটি দায়ের করেছেন উপজেলার হামদামপুর গ্রামের গোলাম শেখ।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- কচুয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই রাকিব, কনস্টেবল মো. রেজানুর, মামুনুর রশিদ এবং স্থানীয় হামদামপুর গ্রামের মামুনুর রশিদ।

ঝিনাইদহ পিবিআইকে আসামিদের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ সত্য কিনা তা তদন্ত করে ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে মামলার বাদী ও ছয়জন সাক্ষীদের বিশেষ নিরাপত্তা দিতে শৈলকূপা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মামলার বাদী মো. গোলাম শেখ আদালতে অভিযোগ করেন শৈলকূপার হামদামপুর মৌজার ৯৩ দাগের পৈতৃকসূত্রে পাওয়া ১৭ শতক জমির ওপর ঘর বেঁধে বসবাস করে আসছেন। ৭ ফেব্রুয়ারি হামদামপুর গ্রামের মোনতাজ শেখের ছেলে মামুনুর রশিদ পুলিশ নিয়ে তাকে ভিটে থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা করে। এ সময় বাড়িতে প্রবেশ করে ঘরবাড়ি ভাঙচুর করা হয় এবং ঘরের টিন খুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন তারা।

এ সময় গোলাম শেখের স্ত্রী বাধা দিলে তাকে মারধর করে। পরে স্থানীয়দের বাধার মুখে ঘরের টিন রেখে যেতে বাধ্য হলেও কচুয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইন্সপেক্টর (পরিদর্শক) ইলিয়াস হোসেন মোল্লা এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা না দিলে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী ও ডাকাতি মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকি দেন তিনি। ১০ ফেব্রুয়ারি তারা আবারো চাঁদার টাকার জন্য হুমকি দেন।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ বলেন, আদালতের নির্দেশমতো পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলেও ইলিয়াস হোসেন মোল্লা কিছু বলেননি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter