‘শ্রমিক বাঁচাও শিল্প বাঁচাও' শ্লোগানে নেত্রকোনায় বিড়ি শ্রমিকদের সমাবেশ

  যুগান্তর ডেস্ক ০৫ মে ২০১৯, ১৭:০৫ | অনলাইন সংস্করণ

‘শ্রমিক বাঁচাও শিল্প বাঁচাও' শ্লোগানে নেত্রকোনায় বিড়ি শ্রমিকদের সমাবেশ
‘শ্রমিক বাঁচাও শিল্প বাঁচাও' শ্লোগানে নেত্রকোনায় বিড়ি শ্রমিকদের সমাবেশ

'শ্রমিক বাঁচাও শিল্প বাঁচাও' শ্লোগানকে সামনে নেত্রকোনায় সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের নেতা-কর্মীরা। রোববার বেলা ১১টায় নেত্রকোনা পৌরসভার সামনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি এম.কে বাঙ্গালীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নেত্রকোনা পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক গাজী মোজাম্মেল হোসেন টুকু।

এছাড়াও বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, নেত্রকোনা অঞ্চলের সভাপতি আবুল কাশেম, সহ-সভাপতি সুরুজ আলী ফকির, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গফুর প্রমুখ। সমাবেশে হাজারো বিড়ি শ্রমিক অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ‘শ্রমিক ও শিল্প রক্ষার্থে আমরা সর্বাত্মক সহযোগিতা করব। আমরা শ্রমিকদের যৌক্তিক আন্দোলনে একাত্মতা ঘোষণা করছি।

বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি এম.কে বাঙ্গালী বলেন, আমরা ধূমপানের পক্ষে নয়। তবে দেশে ধূমপান থাকলে বিড়ি থাকবে। ধূমপান বন্ধের নামে শুধু বিড়ি শিল্পকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্র কোনভাবেই হতে দিব না।

তিনি বলেন, বিড়ি বন্ধের আগে সিগারেটকে বন্ধ করতে হবে। বিড়ির উপর ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আরোপিত সকল শুল্ক প্রত্যাহার করতে হবে। বিড়ির উপর ভবিষ্যতে কোন শুল্ক বৃদ্ধি করার চেষ্টা করলে কঠোর আন্দোলেনের মাধ্যমে তা প্রতিহত করার হুমকি দিয়েছেন তিনি।

এছাড়াও তিনি বিড়ি শ্রমিকদের ন্যায্যমূল্য পরিশোধ করতে বিড়ি মালিকদের প্রতি অনুরোধ করেন।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×