১০ টাকার শাক নিয়ে সংঘর্ষে পুলিশের অদক্ষতা, ওসি ক্লোজড

  হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ১৩ মে ২০১৯, ০১:৩৩ | অনলাইন সংস্করণ

হোসেনপুরে ত্রিপক্ষীয় সংঘর্ষ
হোসেনপুরে ত্রিপক্ষীয় সংঘর্ষ। ফাইল ছবি

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে ত্রিপক্ষীয় সংঘর্ষের ঘটনা সামাল দিতে পুলিশের অদক্ষতা, অতিরিক্ত শক্তি প্রয়োগসহ নানা অভিযোগ উঠেছে। এসব অভিযোগে হোসেনপুর থানার ওসি মো. আবুল হোসেনকে ক্লোজড করা হয়েছে। শনিবার রাতে তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়।

এর আগে একই কারণে ঘটনার দিন ৮ মে এসআই রেহানুলকেও পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়।

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পাট শাক কেনা বেচাকে কেন্দ্র করে পৌর সদরের নতুন বাজার এলাকায় দুই গ্রামবাসী ও পুলিশের সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ ১১৩ রাউন্ড গুলি, ১১টি টিয়ারসেল ছুঁড়ে ও লাঠিচার্জ করে। ত্রিপক্ষীয় এ সংঘর্ষে ছয় পুলিশসহ আহত হয়েছিলেন ৫০ জন। এর মধ্যে পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেটবিদ্ধ হয়ে আহত হয় অন্তত ২৩ জন।

ওই রাতের ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নতুন বাজার এলাকার চায়ের দোকানদার হরযত আলী ও বিল্লাল বলেন, দুই গ্রুপের সংঘর্ষের সময় ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে লোকজন যতটুকু আহত হয়েছে তার চেয়ে অনেকগুন বেশি আহত হয়েছে পুলিশের গুলি ও লাঠিচার্জে। শুধু তাই নয়, পুলিশের এলোপাতাড়ি গুলি চালানোও তাদের অবাক করেছে।

এদিকে, পুলিশ ঘটনার পরদিন ৯ মে রাতে ছয় গ্রামের অজ্ঞাত ২৫০০ লোককে আসামি দিয়ে মামলা করায় সমালোচনার ঝড় উঠে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, এ ঘটনায় নিরপরাধ পথচারী ও ব্যবসায়ীরাও ছাড় পাইনি পুলিশের লাঠিচার্জ ও গুলির হাত থেকে। অথচ পুলিশ সাহেবেরচর, চরবিশ্বনাথপুর ও ধূলিহর, পদুরগাতি, কাইছমা ও আড়াইবাড়িয়া গ্রামের আড়াই হাজার লোকের বিরুদ্ধে মামলা করে নিরপরাধ লোকজনকে হয়রানি করছে।

এ বিষয়ে হোসেনপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরাফাতুল ইসলাম ওসি মো. আবুল হোসেন ও এসআই রেহানুলকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×