এবার বাসাইলে ধানক্ষেতে আগুন দিয়ে কৃষকের প্রতিবাদ
jugantor
এবার বাসাইলে ধানক্ষেতে আগুন দিয়ে কৃষকের প্রতিবাদ

  টাঙ্গাইল প্রতিনিধি  

১৪ মে ২০১৯, ১১:৫২:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

বাসাইলে ধানক্ষেতে আগুন দিয়ে কৃষকের প্রতিবাদ

ধানের দাম কম হওয়ায় টাঙ্গাইলের কালিহাতীর পর এবার বাসাইলে পাকা ধানক্ষেতে আগুন লাগিয়ে প্রতিবাদ করেছেন এক কৃষক।

সোমবার বিকালে বাসাইল উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের কাশিল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ওই গ্রামের কৃষক নজরুল ইসলাম খান নিজের পাকা ধানক্ষেতে আগুন ধরিয়ে এ প্রতিবাদ জানান।

প্রতিবাদী কৃষক নজরুল বলেন, বাজারে প্রতি মণ ধানের দাম ৫০০ টাকা। অথচ এক মণ ধানের উৎপাদন খরচ এক হাজার টাকার ওপরে। এ ছাড়া বর্তমানে একজন ধানকাটা শ্রমিকের মজুরি ৮০০ থেকে ৮৫০ টাকা। আর একজন শ্রমিক একদিনে এক থেকে দেড় মণ ধান কাটতে পারে।

এ ছাড়া শ্রমিক সংকটের কারণে ক্ষেতের পাকা ধান আছে কিন্তু ধানে চাল নাই ও সময়মতো ঘরে তুলতে পারছি না। তাই কোনো উপায় না দেখে দেশের কৃষকদের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ হিসেবে আমি নিজের পাকা ধানক্ষেতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছি, যাতে ধানের দাম বাড়ানোর বিষয়টি সরকার বিবেচনা করেন।

কাশিল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান মির্জা রাজিক পাকা ধানক্ষেতে আগুন দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বাসাইল উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রুপালি খাতুন জানান, এ সময়ে ধানের বাজার কিছুটা কম থাকলেও কৃষক যদি ধান সংরক্ষণ করেন, তবে কয়েক দিন পরই অধিক মূল্য পাবেন। দাবদাহসহ বিভিন্ন কারণে বর্তমানে কিছুটা শ্রমিক সংকট রয়েছে বলে তিনি জানান।

এর আগে রোববার টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার পাইকড়া গ্রামের আবদুল মালেক সিকদার নামের এক কৃষক নিজের পাকা ধানে আগুন দিয়ে অভিনব প্রতিবাদ জানান।

এদিন দুপুরে উপজেলার পাইকড়া ইউনিয়নের বানকিনা এলাকায় তিনি তার নিজস্ব ধান ক্ষেত্রে পেট্রল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেন। মালেক সিকদারের এই প্রতিবাদে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন এলাকার অধিকাংশ কৃষক। পাকা ধানে আগুন দেখে অনেকেই ছুটে আসেন।

এবার বাসাইলে ধানক্ষেতে আগুন দিয়ে কৃষকের প্রতিবাদ

 টাঙ্গাইল প্রতিনিধি 
১৪ মে ২০১৯, ১১:৫২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বাসাইলে ধানক্ষেতে আগুন দিয়ে কৃষকের প্রতিবাদ
বাসাইলে ধানক্ষেতে আগুন দিয়ে কৃষকের প্রতিবাদ। ছবি-যুগান্তর

ধানের দাম কম হওয়ায় টাঙ্গাইলের কালিহাতীর পর এবার বাসাইলে পাকা ধানক্ষেতে আগুন লাগিয়ে প্রতিবাদ করেছেন এক কৃষক। 

সোমবার বিকালে বাসাইল উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের কাশিল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

ওই গ্রামের কৃষক নজরুল ইসলাম খান নিজের পাকা ধানক্ষেতে আগুন ধরিয়ে এ প্রতিবাদ জানান। 

প্রতিবাদী কৃষক নজরুল বলেন, বাজারে প্রতি মণ ধানের দাম ৫০০ টাকা। অথচ এক মণ ধানের উৎপাদন খরচ এক হাজার টাকার ওপরে। এ ছাড়া বর্তমানে একজন ধানকাটা শ্রমিকের মজুরি ৮০০ থেকে ৮৫০ টাকা। আর একজন শ্রমিক একদিনে এক থেকে দেড় মণ ধান কাটতে পারে। 

এ ছাড়া শ্রমিক সংকটের কারণে ক্ষেতের পাকা ধান আছে কিন্তু ধানে চাল নাই ও সময়মতো ঘরে তুলতে পারছি না। তাই কোনো উপায় না দেখে দেশের কৃষকদের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ হিসেবে আমি নিজের পাকা ধানক্ষেতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছি, যাতে ধানের দাম বাড়ানোর বিষয়টি সরকার বিবেচনা করেন। 

কাশিল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান মির্জা রাজিক পাকা ধানক্ষেতে আগুন দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বাসাইল উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রুপালি খাতুন জানান, এ সময়ে ধানের বাজার কিছুটা কম থাকলেও কৃষক যদি ধান সংরক্ষণ করেন, তবে কয়েক দিন পরই অধিক মূল্য পাবেন। দাবদাহসহ বিভিন্ন কারণে বর্তমানে কিছুটা শ্রমিক সংকট রয়েছে বলে তিনি জানান।

এর আগে রোববার টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার পাইকড়া গ্রামের আবদুল মালেক সিকদার নামের এক কৃষক নিজের পাকা ধানে আগুন দিয়ে অভিনব প্রতিবাদ জানান।

এদিন দুপুরে উপজেলার পাইকড়া ইউনিয়নের বানকিনা এলাকায় তিনি তার নিজস্ব ধান ক্ষেত্রে পেট্রল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেন। মালেক সিকদারের এই প্রতিবাদে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন এলাকার অধিকাংশ কৃষক। পাকা ধানে আগুন দেখে অনেকেই ছুটে আসেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন