কাপ্তাইয়ে দুই আ’লীগ কর্মীকে হত্যায় ২ ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

  রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি ১৬ মে ২০১৯, ২০:৪০ | অনলাইন সংস্করণ

রাঙ্গামাটি

রাঙ্গামাটির কাপ্তাইয়ে আওয়ামী লীগের দুই কর্মীকে গুলিতে হত্যার ঘটনায় করা মামলার এজাহারভূক্ত আসামি ওই উপজেলার দুই ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

তারা হলেন রাইখালী ইউপি চেয়ারম্যান সায়া মং মারমা ও চিৎমরম ইউপি চেয়ারম্যান ক্যাইসা অং মারমা।

জানা গেছে, বুধবার আত্মসমর্পণ করে জামিনের জন্য আদালতে হাজির হন ওই দুই ইউপি চেয়ারম্যান। এতে তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে দুই জনকেই গ্রেফতারের নির্দেশ দেন রাঙ্গামাটির অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাবরিনা আলী। এরপর তাদেরকে রাঙ্গামাটি জেলা কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশের কোর্ট পরিদর্শক নিজাম উদ্দিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ৪ ফেব্রুয়ারি কাপ্তাই উপজেলার রাইখালী ইউনিয়নের কারিগরপাড়ায় আওয়ামী লীগকর্মী মংসানু মারমা ও মো. জাহিদুল ইসলামকে গুলিতে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় নিহত মংসানু মারমার শ্বশুর আপ্রু মারমা বাদী হয়ে চন্দ্রঘোনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ২১ জনের নাম উল্লেখসহ আরও অজ্ঞাত ১০-১২ জনকে আসামি করা হয়। এতে এজাহারভূক্ত আসামি রাইখালী ইউপি চেয়ারম্যান সায়া মং মারমা ও চিৎমরম ইউপি চেয়ারম্যান ক্যাইসা অং মারমা এতদিন পলাতক ছিলেন।

কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই জোড়া খুনের মামলায় যৌথবাহিনীর অভিযানে এর আগে ৮ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। মামলায় এ নিয়ে গ্রেফতার আসামির সংখ্যা ১০। এর আগে গ্রেফতার আসামি খোংসাথুই মারমা, তপন তালুকদার, আওয়াইং মারমা, উথোয়াইনু মারমা, মংসাপ্রæ মারমা, সাচিং মং মারমা, তেজেন্দ্র তঞ্চঙ্গ্যা ও থুইচিং মারমা জেলহাজতে রয়েছেন।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×