বগুড়ার বন্ধুর ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

  বগুড়া ব্যুরো ১৬ মে ২০১৯, ২১:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

মো. বাদল
মো. বাদল

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহারে দুই মাদক ব্যবসায়ী বন্ধু একে অপরের স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করা নিয়ে বিরোধে রেজাউল করিম নামে একজনের ছুরিকাঘাতে মো. বাদল (৩৫) নামে একজন খুন হয়েছেন।

বুধবার রাতে আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহারে পশ্চিম লোকো কলোনী এলাকার বাড়িতে ছুরিকাঘাত করা হয়। রাতেই তিনি বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে মারা যান।

বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত মামলা হয়নি। পুলিশ কাউকে গ্রেফতারও করতে পারেনি।

আদমদীঘি থানার ওসি মনিরুল ইসলাম এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, সান্তাহারের পশ্চিম লোকো কলোনী এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে ফেরিওয়ালা বাদল ও পার্শ্ববর্তী নওগাঁ সদরের কালিতলার আফতাব আলীর ছেলে রেজাউল করিম প্রায় দুই বছর আগে মাদক, ছিনতাইসহ বিভিন্ন মামলায় বগুড়া জেলে ছিলেন। তখন তাদের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

জামিনে ছাড়া পাবার পর তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব অটুট থাকে এবং একে অপরের বাড়িতে যাতায়াত করতে থাকেন। এক পর্যায়ে বাদলের সঙ্গে রেজাউলের স্ত্রী ফাতেমা বেগমের এবং রেজাউলের সঙ্গে বাদলের স্ত্রী নার্গিসের পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে উঠে। দুজনই দুই সন্তানের মা।

রেজাউল এক বছর আগে বাদলের স্ত্রী নার্গিসকে পালিয়ে নিয়ে বিয়ে করেন। এছাড়া বাদল ছয় মাস আগে রেজাউলের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী ফাতেমাকে পালিয়ে বিয়ে করেন। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। তবে বাদলের ঘরে থাকা দ্বিতীয় স্ত্রী ফাতেমা গোপনে তার প্রথম স্বামী রেজাউলের সঙ্গে সম্পর্ক রাখেন।

বুধবার দুপুরে রেজাউল তার সন্তান দেখতে বাদলের বাড়িতে আসেন। এতে বাদল ক্ষুব্ধ হন এবং রেজাউলের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় লিপ্ত হন। তখন রেজাউল তার বন্ধু বাদলকে হুমকি দিয়ে চলে যান। রাত ৮টার দিকে রেজাউল আবার এসে বাদলের ওপর অতর্কিতে হামলা চালান। তাকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান।

বাদলের বাবা শহিদুল ইসলাম জানান, গুরুতর আহত বাদলকে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা তাকে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। রাত ১২টার দিকে বাদলকে সেখানে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

আদমদীঘি থানার ওসি মনিরুল ইসলাম জানান, ফেরিওয়ালা বাদল ও রেজাউল দুজনই মাদক ব্যবসা, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িত। বাদলের লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×