পুলিশের হাত থেকে ছিনিয়ে নেয়া ‘আসামি বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ

  কিশোরগঞ্জ ব্যুরো ১৭ মে ২০১৯, ১৪:৫৭ | অনলাইন সংস্করণ

পুলিশের হাত থেকে ছিনিয়ে নেয়া ‘আসামি বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ
ছবি: যুগান্তর

কিশোরগঞ্জের মিঠামইন উপজেলায় পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাফসহ ছিনিয়ে নেয়া ‘আসামি’খায়রুল ইসলাম ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আহত হয়েছেন।

পুলিশের দাবি, গুলিবিদ্ধ খায়রুল ইসলামকে ১০০ পিস ইয়াবাসহ আটক করা হয়। স্বজনরা পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে হ্যান্ডকাফসহ তাকে ছিনতাই করে নিয়ে যায়। পরে গোলাগুলিতে আহত হন তিনি।

খায়রুল এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। এ সময় উপপুলিশ পরিদর্শকসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাতে মিঠামইন উপজেলার ঘাগড়াবাজারের গোরস্তান এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

খায়রুল ইসলাম একই এলাকার খুনু মিয়ার ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ঘাগড়া এলাকা থেকে খায়রুল ইসলামকে ১০০ পিস ইয়াবাসহ আটক করে পুলিশ।

এ সময় তাকে থানায় নিয়ে যাওয়ার পথে খাইরুলের আত্মীয়-স্বজনসহ মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশের ওপর হামলা চালায় ও হ্যাণ্ডকাপসহ খায়রুলকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

পরে রাত ৩টার দিকে খায়রুলকে আটক করতে একই ইউনিয়নের সাবাসপুর গ্রামে অভিযান চালায় পুলিশ। সেখানে একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।

পরে ঘাগড়াবাজারের গোরস্তান এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়। এ সময় খায়রুল গুলিবিদ্ধ হন। গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে মিঠামইন থানার ওসি মো. জাকির রাব্বানী যুগান্তরকে জানান, বন্দুকযুদ্ধে উপপুলিশ পরিদর্শকসহ চার পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হয়েছেন। তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ব্যাপারে মিঠামইন থানায় মাদক ও পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় দুটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×