মাগুরার ডিসির পালঙ্ক কেলেঙ্কারি: ৪ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি

প্রকাশ : ০২ জুন ২০১৯, ২১:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

  মাগুরা প্রতিনিধি

পালঙ্ক । ছবি সংগৃহীত

মাগুরা ডিসির পালঙ্ক কেলেঙ্কারির ঘটনার তদন্তে ৪ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে।  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ফরিদ হোসেনকে আহ্বায়ক করে গঠিত কমিটি ইতোমধ্যেই তদন্ত কাজ শুরু করেছে। তবে এই কমিটি নিয়ে আস্থার সংকট দেখা গিয়েছে।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের রেকর্ড রুম থেকে সীতারাম রাজার মহামূল্যবান পালঙ্ক চুরি এবং জেলা প্রশাসক আলি আকবরের বাংলোতে ব্যবহারের বিষয় নিয়ে গত ৩০ মে থেকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়। 

এরপর দেশে বিদেশে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন মাগুরার বর্তমান জেলা প্রশাসক আলি আকবর।

এ ঘটনার পর মাগুরা জেলা প্রশাসক আলি আকবর বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য রাখেন। স্ববিরোধী ওইসব বক্তব্য তাকে আরো অধিক সমালোচনার মুখে ফেলে দেয়।

এদিকে রাজার পালঙ্ক হারিয়ে যাওয়া এবং প্রকাশিত সংবাদের বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসক ৩১ মে ৪ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। 

মাগুরার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ফরিদ হোসেনকে আহ্বায়ক করে গঠিত তদন্তে কমিটির অন্য সদস্যরা হচ্ছেন, জেলা প্রশাসনে দায়িত্বরত এনডিসি রাজিব চৌধুরী, নাজির হরশিত শিকদার এবং রেকর্ড শাখার সহকারী শফিকুল ইসলাম। এই কমিটিকে তিন কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার কথা বলা হয়েছে।

রাজার পালঙ্ক নিয়ে প্রকাশিত বিভিন্ন পত্রিকার সংবাদে এনডিসি রাজিব চৌধুরীর সম্পৃক্ততা উল্লেখ করা হয়েছে। অথচ জেলা প্রশাসকের তদন্ত কমিটিতে রাজিব চৌধুরীকেই সদস্য করায় তদন্তের স্বচ্ছতা নিয়ে শুরুতেই সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

এ বিষয়ে তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ফরিদ হোসেন বলেন, দায়িত্ব পাওয়ার পরই তদন্ত কাজ শুরু করা হয়েছে। 

নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই তদন্ত কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব হবে বলেও তিনি জানান।