ঈদের দিন ড্রেসিং টেবিলের সামনে সাপের কামড়ে কলেজছাত্রীর মৃত্যু
jugantor
ঈদের দিন ড্রেসিং টেবিলের সামনে সাপের কামড়ে কলেজছাত্রীর মৃত্যু

  পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি  

০৭ জুন ২০১৯, ২০:৩৯:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সাপের কামড়

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় অনার্স পড়ুয়া ছাত্রী রিতু খাতুন সাপের কামড়ে মারা গেছেন। ঈদের দিন বুধবার সকালে পীরগঞ্জ পৌরসভার পচাকান্দর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

রিতু খাতুন পীরগঞ্জ পৌরসভার পচাকান্দর গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর কনিষ্ঠ মেয়ে। তিনি পীরগঞ্জ সরকারি শাহ আব্দুর রউফ কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

গ্রামবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন সকাল ৭টার দিকে মিতু দাঁত ব্রাশ করে ড্রেসিং টেবিলের সামনে মুখে ক্রিম দেয়ার জন্য দাঁড়ায়। ঠিক সে সময়ে ড্রেসিং টেবিলের নিচে মাটির গর্ত লুকিয়ে থাকা গোখরা (গোমা) সাপ তাক পায়ের বৃদ্ধাঙ্গুলে দংশন করে।

এ সময় রিতু চিৎকার করলেও সাপের ভয়ে কেউ ঘরে প্রবেশ করার সাহস পায়নি। প্রায় ৫ মিনিট পর বেশ কয়েকজন লাঠিসোটা নিয়ে ঘরে ঢুকে তাকে উদ্ধার করে।

প্রথমে তাকে কবিরাজের কাছে, তারপর পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার হাসপাতালে ভ্যাক্সিন নাই জানিয়ে দিয়ে রোগীকে রংপুর মেডিকেলে নিয়ে যেতে বলে। বেলা ১টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক রিতুকে মৃত ঘোষণা করেন। ওইদিন রাত ১০টায় পচাকান্দর পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

ঈদের দিন ড্রেসিং টেবিলের সামনে সাপের কামড়ে কলেজছাত্রীর মৃত্যু

 পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি 
০৭ জুন ২০১৯, ০৮:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সাপের কামড়
সাপের কামড়। প্রতীকী ছবি (সংগৃহীত)

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় অনার্স পড়ুয়া ছাত্রী রিতু খাতুন সাপের কামড়ে মারা গেছেন। ঈদের দিন বুধবার সকালে পীরগঞ্জ পৌরসভার পচাকান্দর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

রিতু খাতুন পীরগঞ্জ পৌরসভার পচাকান্দর গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর কনিষ্ঠ মেয়ে। তিনি পীরগঞ্জ সরকারি শাহ আব্দুর রউফ কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

গ্রামবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন সকাল ৭টার দিকে মিতু দাঁত ব্রাশ করে ড্রেসিং টেবিলের সামনে মুখে ক্রিম দেয়ার জন্য দাঁড়ায়। ঠিক সে সময়ে ড্রেসিং টেবিলের নিচে মাটির গর্ত লুকিয়ে থাকা গোখরা (গোমা) সাপ তাক পায়ের বৃদ্ধাঙ্গুলে দংশন করে।

এ সময় রিতু চিৎকার করলেও সাপের ভয়ে কেউ ঘরে প্রবেশ করার সাহস পায়নি। প্রায় ৫ মিনিট পর বেশ কয়েকজন লাঠিসোটা নিয়ে ঘরে ঢুকে তাকে উদ্ধার করে।

প্রথমে তাকে কবিরাজের কাছে, তারপর পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার হাসপাতালে ভ্যাক্সিন নাই জানিয়ে দিয়ে রোগীকে রংপুর মেডিকেলে নিয়ে যেতে বলে। বেলা ১টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক রিতুকে মৃত ঘোষণা করেন। ওইদিন রাত ১০টায় পচাকান্দর পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন