বিশ্বনাথে আ’লীগ নেতাকে খুন করে মৎস্য খামারে লাশ

প্রকাশ : ০৭ জুন ২০১৯, ২০:৫০ | অনলাইন সংস্করণ

  বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি

আহমদ আলী

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় আহমদ আলী (৫৫) নামে আওয়ামী লীগের এক নেতাকে খুন করে মৎস্য খামারে লাশ রাখা হয়েছে অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে স্থানীয়দের খবরের প্রেক্ষিতে পুরান সৎপুরস্থ তার নিজ মৎস্য খামার থেকে লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত আহমদ আলী উপজেলার দেওকলস ইউনিয়নের দক্ষিণ সৎপুর গ্রামের মৃত ওহাব উল্লার পুত্র। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম একজন সদস্য ছিলেন। বিশিষ্ট সালিশ ব্যক্তিত্ব আহমদ আলী আওয়ামী লীগের নেতা হলেও স্থানীয় যে কোনো অনুষ্ঠানে অথবা এলাকার গরিব লোকজনকে আর্থিক সহযোগিতা করতে।

লাশের সুরতহাল রিপোর্ট ও ময়নাতদন্ত শেষে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। তবে গ্রামের লোকজনের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে একটি সালিশ বৈঠকের জের ধরেই তাকে খুন করা হয়েছে। 

তাদের দাবি, ওই খুন করেছে ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মারুফ আহমদ (৩৭) ও সৎপুর খাসজান গ্রামের মৃত ময়না মিয়ার পুত্র এবং খুন হওয়া আহমদ আলীর মৎস্য খামারের প্রহরী জমির হোসেন (৩০)। 

লাশ উদ্ধারের পর থেকেই তারা দুজন পলাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

খুন হওয়া আহমদ আলীর লাশ উদ্ধারের সময় তার সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন, পায়ের জুতা, লাইট ও পকেটে কোনো টাকা পাওয়া যায়নি বলে পরিবারের লোকজন জানান।

বিশ্বনাথ থানার এসআই দিদারুল আলম যুগান্তরকে জানান, লাশের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

বিশ্বনাথ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) দুলাল আখন্দ বলেন, তাকে খুন করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।