যুবলীগ নেতার মায়ের মৃত্যু হওয়ায় চিকিৎসককে মারপিট!

  বগুড়া ব্যুরো ১৯ জুন ২০১৯, ১৮:২৬ | অনলাইন সংস্করণ

যুবলীগ নেতার মায়ের মৃত্যু হওয়ায় চিকিৎসককে মারপিট!
হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভাঙচুর। ছবি: যুগান্তর

বগুড়ার শিবগঞ্জে হাসপাতালে যুবলীগ নেতার মায়ের মৃত্যু হওয়ায় এক চিকিৎসককে মারপিট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। একই সঙ্গে হাসপাতালটির জরুরি বিভাগে ভাঙচুর করা হয়েছে।

এ ঘটনায় বাবা ও ভাইসহ ওই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মারপিটের শিকার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. দেলোয়ার হোসেন নয়ন মঙ্গলবার রাতে শিবগঞ্জ থানায় এ মামলা করেন।

তবে বুধবার বিকালে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ আসামিদের কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

আসামিরা হলেন- শিবগঞ্জ পৌর এলাকার লালদহ গ্রামের সার-কীটনাশক ব্যবসায়ী দুদু মিয়া, তার দুই ছেলে পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াস ইসলাম ও গোলাম রাব্বী।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিদর্শক (তদন্ত) সানোয়ার হোসেন ও বিভিন্ন সূত্র জানায়, গত ১৭ জুন বিকালে যুবলীগ নেতা ইলিয়াসের মা ডলি বেগম (৫২) বাড়িতে অসুস্থতা বোধ করলে তাকে শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। রাত ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

তার মৃত্যুর খবর বাড়িতে পৌঁছালে পরিবারের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে আসেন। তারা চিকিৎসকের অবহেলার অভিযোগ তুলে জরুরি বিভাগের হামলা চালিয়ে দরজা, জানালা ও আসবাবপত্র ভাংচুর করেন।

পরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দোতলায় আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. দেলোয়ার হোসেন নয়নকে মারপিট করা হয়। খবর পেয়ে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আরএমও ডা. নয়ন জানান, সম্ভবত ডলি বেগম ঘুমের মধ্যে স্ট্রোক বা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এ ছাড়া ঘটনার সময় তিনি ছিলেন না। রোগীর স্বজনরা ভুল বুঝে ভাংচুর ও তাকে মারপিট করেছেন।

এ ব্যাপারে তিনি শিবগঞ্জ থানায় তিন জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিদর্শক (তদন্ত) সানোয়ার হোসেন জানান, ডাক্তারকে মারপিট, ভাংচুর ও সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় মামলা হয়েছে। আসামিরা পালিয়ে যাওয়ায় বুধবার বিকাল পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সলিমুল্লাহ আকন্দ হামলা ও মারপিটের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এ প্রসঙ্গে শিবগঞ্জ পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াস ইসলাম জানান, রাত সাড়ে ১০টায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আউটডোরে কোনো চিকিৎসককে পাওয়া যায়নি। ফোন করে ডাক্তারকে ডেকে আনতে হয়। তার মা চিকিৎসার অভাবে মারা গেছেন। তাই উত্তেজিত জনতা ভাংচুর ও চিকিৎসকে মারপিট করেছেন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকরা সঠিকভাবে রোগীদের সেবা দেন না। এ কারণে মাঝে মধ্যেই দুঃখজনক ঘটনা ঘটে থাকে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×