পুলিশের ‘বাড়াবাড়িতে’ কপাল পুড়ল ২ শতাধিক চাকরিপ্রার্থীর!
jugantor
পুলিশের ‘বাড়াবাড়িতে’ কপাল পুড়ল ২ শতাধিক চাকরিপ্রার্থীর!

  বরিশাল ব্যুরো  

২১ জুন ২০১৯, ১২:৫৮:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

পরীক্ষায় অংশ নিতে না পেরে চাকরিপ্রার্থীদের কান্না। ছবি-যুগান্তর
পরীক্ষায় অংশ নিতে না পেরে চাকরিপ্রার্থীদের কান্না। ছবি-যুগান্তর

বরিশালে বৈরী আবহাওয়ার কারণে যথাসময়ে উপস্থিত না হওয়ায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার কেন্দ্রে দুই শতাধিক চাকরিপ্রার্থীকে প্রবেশ করতে দেয়নি পুলিশ। 

এ ঘটনার প্রতিবাদে পরীক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করলে পুলিশ তাদের লাঠিপেটা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে সরকারি বরিশাল কলেজকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। 

জানা গেছে, আজ সকাল ১০টায় বরিশাল নগরীর ৩২ কেন্দ্রে একযোগে শুরু হয় সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা। প্রবেশপত্রের শর্ত অনুযায়ী পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগে কেন্দ্রে প্রবেশ করার নিয়ম।

কিন্তু বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়ার কারণে প্রায় দুই শতাধিক পরীক্ষার্থী পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগে কেন্দ্রে পৌঁছাতে পারেননি। অনেকেই পরীক্ষা শুরুর ১০ মিনিট আগে, কেউ কেউ ১০টায় এসে কেন্দ্রে উপস্থিত হন।

কিন্তু পুলিশ নিয়মের দোহাই দিয়ে চাকরিপ্রার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়নি। বৈরী আবহাওয়ার কারণে পরীক্ষার্থীরা যথাসময়ে কেন্দ্রে আসতে পারেননি জানালেও পুলিশ তাদের কোনো কথা শোনেনি। 

পরীক্ষায় বসতে না পেরে এ সময় অনেক নারী চাকরিপ্রার্থীকে কান্না করতে দেখা গেছে। কিন্তু তাতেও মনে গলেনি পুলিশের। 

এ কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন পরীক্ষার্থীরা। একপর্যায়ে তারা সরকারি বরিশাল কলেজকেন্দ্রের প্রধান ফটক ঠেলে কেন্দ্রের ভেতরে প্রবেশ করেন। পরে পুলিশ তাদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়। 

এ সময় পুলিশ বিনাকারণে তাদের লাঠিপেটা করেছে বলে অভিযাগ করেন পরীক্ষার্থীরা।  

ইসরাত জাহান নামে এক পরীক্ষার্থী জানান, বৈরী আবহাওয়া ও বৃষ্টির কারণে প্রায় সব কেন্দ্রেই এ ধরনের সমস্যা হয়েছে। সেসব কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা ঢুকতে পারলেও আমাদের কেন্দ্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন এখানকার ম্যাজিস্ট্রেট। 

এ বিষয়ে বিএমপির উপকমিশনার মোয়াজ্জেম হোসেন ভূঞা জানান, পরীক্ষার্থীরা সঠিক সময় আসতে না পারায় তাদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।

পুলিশের ‘বাড়াবাড়িতে’ কপাল পুড়ল ২ শতাধিক চাকরিপ্রার্থীর!

 বরিশাল ব্যুরো 
২১ জুন ২০১৯, ১২:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পরীক্ষায় অংশ নিতে না পেরে চাকরিপ্রার্থীদের কান্না। ছবি-যুগান্তর
পরীক্ষায় অংশ নিতে না পেরে চাকরিপ্রার্থীদের কান্না। ছবি-যুগান্তর

বরিশালে বৈরী আবহাওয়ার কারণে যথাসময়ে উপস্থিত না হওয়ায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার কেন্দ্রে দুই শতাধিক চাকরিপ্রার্থীকে প্রবেশ করতে দেয়নি পুলিশ।

এ ঘটনার প্রতিবাদে পরীক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করলে পুলিশ তাদের লাঠিপেটা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে সরকারি বরিশাল কলেজকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, আজ সকাল ১০টায় বরিশাল নগরীর ৩২ কেন্দ্রে একযোগে শুরু হয় সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা। প্রবেশপত্রের শর্ত অনুযায়ী পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগে কেন্দ্রে প্রবেশ করার নিয়ম।

কিন্তু বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়ার কারণে প্রায় দুই শতাধিক পরীক্ষার্থী পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগে কেন্দ্রে পৌঁছাতে পারেননি। অনেকেই পরীক্ষা শুরুর ১০ মিনিট আগে, কেউ কেউ ১০টায় এসে কেন্দ্রে উপস্থিত হন।

কিন্তুপুলিশ নিয়মের দোহাই দিয়ে চাকরিপ্রার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়নি। বৈরী আবহাওয়ার কারণে পরীক্ষার্থীরা যথাসময়ে কেন্দ্রে আসতে পারেননি জানালেও পুলিশ তাদের কোনো কথা শোনেনি।

পরীক্ষায় বসতে না পেরে এ সময় অনেক নারী চাকরিপ্রার্থীকে কান্না করতে দেখা গেছে। কিন্তু তাতেও মনে গলেনি পুলিশের।

এ কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন পরীক্ষার্থীরা। একপর্যায়ে তারা সরকারি বরিশাল কলেজকেন্দ্রের প্রধান ফটক ঠেলে কেন্দ্রের ভেতরে প্রবেশ করেন। পরে পুলিশ তাদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়।

এ সময় পুলিশ বিনাকারণে তাদের লাঠিপেটা করেছে বলে অভিযাগ করেন পরীক্ষার্থীরা।

ইসরাত জাহান নামে এক পরীক্ষার্থী জানান, বৈরী আবহাওয়া ও বৃষ্টির কারণে প্রায় সব কেন্দ্রেই এ ধরনের সমস্যা হয়েছে। সেসব কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা ঢুকতে পারলেও আমাদের কেন্দ্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন এখানকার ম্যাজিস্ট্রেট।

এ বিষয়ে বিএমপির উপকমিশনার মোয়াজ্জেম হোসেন ভূঞা জানান, পরীক্ষার্থীরা সঠিক সময় আসতে না পারায় তাদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন